বিজেপির নদিয়া উত্তর থেকে মাফুজা বিদায় নতুন পর্যবেক্ষক গোপাল

বিজেপির নদিয়া উত্তর থেকে  মাফুজা বিদায়   নতুন পর্যবেক্ষক গোপাল

 নদিয়া উত্তর সাংগঠনিক জেলার পর্যবেক্ষক পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল মাফুজা খাতুনকে। তাঁর পরিবর্তে নতুন পর্যবেক্ষক করা হল আরএসএস ঘনিষ্ঠ গোপাল সরকারকে।  বর্তমানে কলকাতায় থাকলেও গোপাল সরকার আদতে নদিয়ার লোক। তাঁদের বাড়ি ছিল তাহেরপুর এলাকায়।

তাহেরপুরের নেতাজি হাইস্কুলে পড়া শেষ করে রানাঘাট কলেজ থেকে স্নাতক হয়েছেন। মাধ্যমিক পাশ করার পর থেকেই  গোপাল সরকার  সঙ্ঘের  স্বয়ং সেবক । প্রথম বর্ষের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত । বর্তমানে বিজেপির শ্রমিক সংগঠন ভারতীয় জনতা মজদুর সেলের সর্বভারতীয় কার্যকরী সভাপতি। 

নদিয়া জেলায় বিজেপির অভ্যন্তরে কোন্দলের সংস্কৃতি দীর্ঘদিনের। এখন প্রাক্তন জেলা সভাপতি মহাদেব সরকারের সঙ্গে বর্তমান জেলা সভাপতি আশুতোষ পালের বিরোধ আর গোপন নেই। অনেকেই মনে করছেন, তাঁকে পর্যবেক্ষক করে নিয়ে আসার পিছনে শুধু গোষ্ঠী কোন্দল সামলানোই নয়, ভোটের আগে সংগঠনকে  মজবুত করা।

 দলের অন্দরের একটি সূত্রের খবর, যে ভাবে দিন-দিন গোষ্ঠী কোন্দল বাড়ছে তাতে উদ্বিগ্ন রাজ্য নেতৃত্ব। সেই কারণেই সংগঠনের রাশ শক্ত হাতে ধরতে আরএসএস ঘনিষ্ঠ এই নেতাকে পর্যবেক্ষক করে নিয়ে আসা হল। বিজেপি সূত্রে জানা গিয়েছে, এর আগেও একাধিক জেলার গোষ্ঠী কোন্দল থামাতে গোপালবাবুকে পর্যবেক্ষক করে পাঠানো হয়েছিল।

তার ফলও নাকি মিলেছিল হাতেনাতে। এর আগে তাঁকে পুরুলিয়া, উত্তর ২৪ পরগনার বারাসত ও পূর্ব মেদিনীপুর জেলার পর্যবেক্ষক করা হয়েছে। জেলার এক নেতার কথায়, 'আগের জেলাগুলিতে গোপালবাবু সফল হয়েছিলেন। এ বার নদিয়া একটা চ্যালেঞ্জ। কারণ সামনেই বিধানসভা ভোট। হাতে বেশি সময় নেই।'