নেতাজির জন্মদিনকে জাতীয় ছুটি ঘোষণার দাবিতে মোদীকে চিঠি মমতার

নেতাজির জন্মদিনকে জাতীয় ছুটি ঘোষণার দাবিতে মোদীকে চিঠি মমতার

নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিন ২৩ জানুয়ারিকে জাতীয় ছুটি ঘোষণার দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি নেতাজির ১২৫ জন্ম দিবসে তাঁর অন্তর্ধান রহস্য সামনে অানার দাবিও জানিয়েছেন তিনি। দুই পাতার চিঠিতে নেতাজির অন্তর্ধান সম্পর্কিত একাধিক বক্তব্য লিখেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, প্রত্যেক বছর ১৮ আগস্ট দিনটি নেতাজির মৃত্যু দিন হিসেবে গণ্য করা হয়। যদিও এই দিনই নেতাজির মৃত্যু হয়েছে এমন কোন প্রমান সামনে আসেনি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকেও প্রত্যেক বছর টুইট করে বলা হয় যে এই দিনে নেতাজির মৃত্যু হয়নি। সেক্ষেত্রে কেন নেতাজির অন্তর্ধান রহস্য মানুষের সামনে আনা হচ্ছে না তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত, এই দিনেই শেষবারের মতো দেখা গিয়েছিল নেতাজিকে। আজ মুখ্যমন্ত্রী চিঠিতে আরও উল্লেখ করে জানিয়েছেন, নেতাজির জন্মদিনে আগেই ছুটি ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার। এমনকী ঝাড়খণ্ড সরকারও তাঁর জন্মদিনকে ছুটি হিসেবে ঘোষণা করেছে। দ্বিতীয়বার শপথ নেওয়ার পর নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করেছিলেন, "নেতাজিকে দেশে প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মর্যাদা দিতে চায় সরকার।

" ২১ অক্টোবর দিনটিকে জাতীয় স্তরে আজাদ হিন্দ দিবস হিসেবে পালনের উদ্যোগ নেয় কেন্দ্রীয় সরকার। এমনকী তিনি উল্লেখ করেছেন নেতাজির যে সমস্ত গোপন ফাইল ছিল তার অনেকটাই প্রকাশ্যে এনেছে কেন্দ্রীয় সরকার। রাজ্য সরকারের হাতেও যে সমস্ত ফাইল ছিল সেগুলি প্রকাশ্যে আনা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে করা হয় একটি বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয় নেতাজির।

যদিও এই দাবি মানতে নারাজ নেতাজি গবেষকদের অনেকেই। তাঁদের মতে নেতাজি সম্পর্কিত বহু তথ্য এখনও সামনে আসেনি এবং এই তথ্যগুলি সামনে আনা উচিত। এর আগে ২০১৮ সালে স্বামী বিবেকানন্দ এবং নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিনকে জাতীয় ছুটি হিসেবে ঘোষণা করার দাবি তুলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিষয়টি নিয়ে চিঠি লিখেছিলেন তিনি।