কমলার হ্যারিসের নাম অপব্যবহার করছেন মীনা হ্যারিস, সতর্ক করল হোয়াইট হাউস

কমলার হ্যারিসের নাম অপব্যবহার করছেন মীনা হ্যারিস, সতর্ক করল হোয়াইট হাউস

‘মাসি’ কমলার হ্যারিসের নাম অপব্যবহার করছেন মীনা হ্যারিস, সতর্ক করল হোয়াইট হাউস। তাদের নির্দেশ, মীনা যে ভাবে তাঁর নিজস্ব ব্র্যান্ডের প্রচার ও জনপ্রিয়তা বাড়াতে কমলার নাম ব্যবহার করছেন তা অবিলম্বে বন্ধ করতে হবে। যে হেতু কমলা এখন আমেরিকার নির্বাচিত ভাইস প্রেসিডেন্ট, তাই তাঁকে বা তাঁর নাম ব্যবহার করার আগে মীনাতে সতর্ক হতে হবে।

এ ব্যাপারে নির্দেশ জারি করেছে হোয়াইট হাউসের নীতিবিষয়ক আইনজীবীর দল। যদিও আমেরিকার একটি সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, হোয়াইট হাউস থেকে এমন নির্দেশ পেয়েও নিজের আচরণ বদলাননি মীনা। সম্প্রতিই কমলার নাম ব্যবহার করে তাঁর নিজস্ব প্রযোজনা সংস্থায় কমলাকে নিয়ে একটি ভিডিয়ো তৈরি করেছেন মীনা। এমনকি, কমলার দেওয়া রাজনৈতিক স্লোগান ব্যবহার করে এক বিশেষ ধরনের হেডফোন তৈরিতেও উদ্যোগী হয়েছেন তিনি।

পেশায় আইনজীবী মীনা একজন উদ্যোগপতিও। মহিলাদের পোশাকের দাতব্য সংস্থা ফেনোমেনালের প্রতিষ্ঠাতা তিনি। সামাজিক সচেতনতার বার্তা দেয় এমন টি-শার্ট ও সোয়েট শার্ট তৈরি করে ফেনোমেনাল। সম্প্রতি কমলাকে ইঙ্গিত করে তাঁদের ‘ভাইস প্রেসিডেন্ট আন্টি’ টি শার্ট নেটমাধ্যমে বিপুল জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। মীনা নিজে একজন লেখক। কমলার ছোটবেলার গল্প নিয়ে লেখা তাঁর ‘কমলা অ্যান্ড মায়া’স বিগ আইডিয়া’ বইটিও দেদার বিকিয়েছিল।

হোয়াইট হাউসে কমলার শপথগ্রহণের ঠিক আগের দিন মীনা তাঁর সাম্প্রতিক বই ‘অ্যাম্বিশাস গার্ল’ প্রকাশ করেন। তবে হোয়াইট হাউস সাফ জানিয়ে দিয়েছে মাসি-বোনঝির সম্পর্ক যেমনই হোক, নিজের ব্র্যান্ডের জনপ্রিয়তা বাড়াতে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্টের নাম আর যথেচ্ছ ব্যবহার করতে পারবেন না মীনা। নেটমাধ্যমের জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব মীনা। ইনস্টাগ্রামে আট লক্ষ অনুগামী তাঁর। টুইটারেও অনুগামী সংখ্যা ৭ লক্ষ ছোঁওয়ার মুখে। বিভিন্ন সামাজিক বিষয়ে বরাবরই নিজের মতামত প্রকাশ করেন মীনা।

সম্প্রতি ভারতের কৃষক আন্দোলন নিয়েও সরব হয়েছেন। এব্যাপারে যে গুটিকয়ের আন্তর্জাতিক তারকারা ভারতীয় কৃষকদের পক্ষে কথা বলেছেন, মীনা তাঁদের মধ্যে অন্যতম। এ ছাড়াও নানা বিষয়ে মীনার বক্তব্য ও কমলার নাম ব্যবহার করার প্রবণতা যে আমেরিকার নতুন বাইডেন প্রশাসনকে বেশ সমস্যায় ফেলছে তা তাদের পদক্ষেপে স্পষ্ট। হোয়াইট হাউসের নীতিগত রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে থাকা আইনজীবী গোষ্ঠী মীনার প্রসঙ্গে সম্প্রতি বলেছে, ‘‘যা হয়ে গিয়েছে তা তো আর বদলানো যাবে না, তবে ভবিষ্যতে এই আচরণ বদলাতে হবে মীনাকে।’’

নতুন নিয়ম অনুযায়ী কমলাকে নিয়ে বই লেখা, কমলার নামে কোনও টি-শার্ট, সোয়েট শার্ট বানাতে বা বিক্রি করতে পারবেন না মীনা। কিছুদিন আগে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্টকে মূল ভাবনা হিসেবে রেখে সাঁতার পোশাক তৈরি করেছিলেন মীনা। তা-ও আর বানাতে বা বিক্রি করতে পারবেন না তিনি। যদিও হোয়াইট হাউসের সতর্কতার পরও কমলার নাম ব্যবহার নিয়ে সতর্ক হননি মীনা। ওয়াশিংটনের একটি সংবাদপত্র জানিয়েছে, সতর্ক হওয়ার নোটিস পেয়েও নিজের প্রযোজনা সংস্থা থেকে কমলাকে নিয়ে একটি ভিডিয়ো প্রকাশ করেছেন মীনা। এমনকি, কমলার মুথে জনপ্রিয় হওয়া বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে এক বিশেষ ধরনের হেডফোনও বাজারে আনাতে উদ্যোগী হয়েছেন মীনা।