রাজ্যে কমছে তাপমাত্রার পারদ, জেনে নিন আবহাওয়ার পূর্বাভাস

রাজ্যে কমছে তাপমাত্রার পারদ, জেনে নিন আবহাওয়ার পূর্বাভাস

ক্রিজে নামতে বিলম্ব। কিন্তু, ময়দানে নেমেই ঝোড়ো ব্যাটিং করছে শীত। উত্তুরে হাওয়ার জেরে রাজ্যে কমছে তাপমাত্রার পারদ। বড়দিন এবং নিউ ইয়ারের আগে তাপমাত্রা আরও নামতে পারে, জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। এদিকে শুক্রবারই ছিল মরশুমের শীতলতম দিন। কলকাতার তাপমাত্রার পারদ নেমেছে ১৪ ডিগ্রির নীচে।

শুক্রবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৩.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি কম। এই মরশুমে প্রথম কলকাতার তাপমাত্রার পারদ নামল ১৪ ডিগ্রির নীচে। এদিকে, বৃহস্পতিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৪.৮ ডিগ্রি, যা স্বাভাবিকের থেকে ২ ডিগ্রি কম। এদিন বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ ছিল সর্বাধিক ৯৫ শতাংশ এবং সর্বোচ্চ ৫২ শতাংশ। আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, সকালের দিকে শহরের আকাশ থাকতে পারে কুয়াশাছন্ন। এর দরুন কমবে দৃশ্যমানতা।

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আকাশ পরিষ্কার হবে। নিম্নচাপের জেরে বারবার বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছিল শীত। উত্তুরে হাওয়ার প্রবেশের পথে দেওয়াল হয়ে দাঁড়াচ্ছিল পুবালি হাওয়া। এদিকে পারদ পতন না হওয়ায় রীতিমতো হাপিত্যেশ করছিলেন শীতপ্রেমীরা। নিম্নচাপের জেরে এক থেকে দু’দিন পারদ পতন হলেও কিছুতেই থিতু হচ্ছিল না ঠান্ডা। কিন্তু, অবশেষে সুখবর, স্থায়ীভাবে শীত উপভোগ করতে পারবেন সাধারণ মানুষ।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, আগামী তিন দিনে আবহাওয়ার বিশেষ পরিবর্তন হবে না। জাঁকিয়ে শীত উপভোগ করতে পারবেন সাধারণ মানুষ। কোনও সিস্টেম না থাকায় এই মুহূর্তে রাজ্যে নতুন করে বৃষ্টিপাতের কোনও সম্ভাবনা নেই। এদিকে, কলকাতার পাশাপাশি জেলাগুলির তাপমাত্রা একধাক্কায় কমবে অনেকটাই, জানাচ্ছে হাওয়া অফিস।

 স্বাভাবিকভাবেই উৎসবের মরশুমের আগে এই পারদ পতনে খুশি শীতপ্রেমীরা। বাক্স থেকে বেরিয়েছে লেপ, টুপি, সোয়েটার। কোভিডের জেরে দলবেঁধে আগুন পোহানোর দৃশ্যটা শুধুই ‘সুখস্মৃতি’ হলেও এই জমাটি ঠান্ডা উপভোগ করছেন সাধারণ মানুষ। আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, রাজ্যে এই মুহূর্তে বৃষ্টিপাতের কোনও সম্ভাবনা নেই। আবহাওয়া মূলত শুষ্ক থাকবে। দুই বঙ্গের পরিস্থিতিই কিছুটা এক থাকতে। পাহাড়ে আরও কমবে তাপমাত্রার পারদ। এছাড়াও একধিক জেলায় অনুভূত হবে জমাটি ঠান্ডা। বড়দিনের আগে আরও পারদ পতন হবে রাজ্যে, শীতপ্রেমীদের জন্য আশার বার্তা আবহাওয়াবিদদের।