সুরক্ষা বিধির মধ্যে দিয়েই শুরু হচ্ছে মেট্রো পরিষেবা, জেনে নিন নতুন নিয়মাবলী

সুরক্ষা বিধির মধ্যে দিয়েই শুরু হচ্ছে মেট্রো পরিষেবা, জেনে নিন নতুন নিয়মাবলী

আজবাংলা   দীর্ঘ প্রায় ছয় মাস লকডাউন থাকার পর নিট পরীক্ষার্থীদের জন্যই কাল থেকে অর্থাৎ রবিবার থেকে গড়াল কলকাতা মেট্রোর চাকা। আজ সকাল ৮টা থেকে সর্বসাধারণের জন্য শুরু হয়েছে মেট্রো পরিষেবা। অতএব নিও নর্মাল পরিস্থিতিতে ফের শুরু হল জীবন যাত্রা। গতকাল রাত ৮টা পর থেকে অনলাইনে ই-পাসের আবেদন করা শুরু হয়।

গত রবিবার পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে অ্যাডমিট কার্ড যে ভূমিকা গ্রহণ করেছিল, সোমবার থেকে সেই ভূমিকাই নেবে মেট্রো ই-পাস। স্টেশনের মধ্যে থেকে ভিড় ও ধাক্কাধাক্কি এমন কিছুই আর হবে না বলে দাবি করেছেন মেট্রোর কর্তৃপক্ষ। আজকের স্টেশনে ঢোকার সময় দেখা গিয়েছে পুলিশকে। তাঁরা যাত্রীর ই-পাস দেখে থার্মাল স্ক্যানিং করে দেবেন। সব কিছু সুসম্পন্ন ভাবে মিটলে তারপর যাত্রীরা যেতে পেরেছেন টিকিট কাউন্টারের দিকে। ওখানে দেওালে দেওয়ালে ঝোলানো রয়েছে স্যানিটাইজার।

এহেন করোনা পরিস্থিতিতে সংক্রমণ আটকানোর জন্য নতুন কিছু নিয়ম ধার্য করেছে মেট্রো কর্তৃপক্ষ। এক্ষেত্রে ই-পাস ও স্মার্ট কার্ড ছাড়া মেট্রো যাতায়াত করা সম্ভবপর হবে না। এখন সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়ে রাতের শেষ ট্রেন স্টেশন থেকে ছাড়বে রাত ৭টায়। এখন ই-পাস যাত্রীদের সুবিধার জন্য মেট্রোর ওয়েবসাইট ও পথদিশা অ্যাপের দ্বারা সংগ্রহ করতে পারবে। এছাড়া এখন থেকে প্রতিটি স্টেশনের গায়ে কিউ আর কোডের পোস্টার থাকবে। সেক্ষেত্রে, মোবাইলে স্ক্যান করেও ই-পাসের আবেদন করা যেতেই পারে।

বর্তমানে মোট ২৪টি স্টেশনে ২৬টি প্রবেশপথ ও ২৭টি প্রস্থান-পথ নির্দিষ্ট করা হয়েছে। এখন যত দ্রুত সম্ভব ট্রেন থেকে নামার পর স্টেশন থেকে বেরিয়ে যেতে হবে। এখন থেকে নির্দিষ্ট সময় অন্তর অন্তর স্টেশনগুলোতে জীবাণুনাশক স্প্রে করা হচ্ছে। প্রথম দিনে কলকাতা মেট্রোর পরিষেবা ব্যবহার করেছেন ১,৬৪৮ জন যাত্রী। এর থেকে মেট্রোর আয় হয়েছে ৬৮,৬৬০ টাকা।