৬০ টাকার টিকিটে কোটিপতি মালদার সিভিক ভোলেন্টিয়ার

৬০ টাকার টিকিটে কোটিপতি মালদার  সিভিক ভোলেন্টিয়ার

মালদা  বছর শেষে ভাগ‍্যের চাকা ঘুরলো সিভিক ভোলেন্টিয়ারের। রাতারাতি হয়ে গেলেন কোটিপতি।এই ভাবে ভাগ্য বদলাবে তা স্বপ্নেও ভাবতে পারেনি সিভিক ভোলেন্টিয়ার।মাত্র ৬০ টাকার টিকিটে প্রথম পুরস্কার পেয়ে পুলিশের দ্বারস্থ ওই সিভিক ভলেন্টিয়ার। এখন কোটিপতি সিভিক ভলেন্টিয়ার এর নিরাপত্তায় পুলিশকর্মীরা ।মাল‍দার রতুয়া-২ নং ব্লকের সিমলা গ্রামের সিভিক সেনাউল এখন কোটিপতির তালিকায় নাম লেখালেন।

নিরাপত্তার জন‍্য রতুয়া থানায় আশ্রয় নিয়েছে ওই যুবক। লটারি বিজেতা সেনাউল জানালেন,সম্প্রতি একমাস হল টিকিট কিনতে শূরু করি।তবে নিজের সামর্থ‍্য অনুযায়ী ক্রয় করতাম।বুধবার সকালে সামসি এলাকায় দশটি টিকিট ৬০ টাকায় ক্রয় করি।পরে মোবাইলে ফলাফল দেখতেই চক্ষু চড়কগাছ।ফলাফল দেখেই অবাক।তারই টিকিট প্রথম পুরস্কার পেয়েছে।

শেখ সেনাউলের  বক্তব্য, তাঁর মা দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ, আর তাঁর চিকিৎসা চলছে। তবে অর্থের অভাবের কারণে তাঁর মায়ের চিকিৎসা ঠিক মতো চালাতে পারছিলেন না তিনি। তাই সেনাউলের দাবি এত টাকা পাওয়ার পর তিনি প্রথমে মায়ের সঠিক চিকিৎসা করবেন, তারপর পরিবারের জন্য একটি ভাল বাড়ি তৈরি করবেন বলে বাধ সেধেছে।বছর শেষে কোটিপতি হওয়ার খুশি সেনাউল সহ তার পরিবার।তাকে দেখতে থানার চৌকাটে এখন উকি মারতে আসছে পরিজন ও বন্ধুরা। রতুয়া থানার আইসি সুবীর কর্মকার জানান,কড়া নিরাপত্তার মধ‍্যেই রয়েছে সেনাউল।