রাজভবনে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সঙ্গে সাক্ষাত্‍ করলেন মিঠুন চক্রবর্তী

রাজভবনে রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সঙ্গে সাক্ষাত্‍ করলেন মিঠুন চক্রবর্তী

রাত পোহালেই বাংলার ভোটগণনা। বঙ্গের মাটিতে পরিবর্তন নাকি প্রত্যাবর্তন, জানতে মুখিয়া গোটা দেশ। ঠিক তার আগের দিন অর্থাত্‍ শনিবার রাজভবনে এলেন মহাগুরু মিঠুন চক্রবর্তী (Mithun Chakraborty)। রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের (Jagdeep Dhankar) সঙ্গে সাক্ষাত্‍ সারলেন তিনি। স্বাভাবিকভাবেই এই সাক্ষাত্‍ ঘিরে জল্পনা দানা বেঁধেছে। যদিও সূত্রের খবর, রাজ্যপালের সঙ্গে মহাগুরুর সাক্ষাত্‍ নেহাতই সৌজন্যমূলক।

রাজভবনের তরফে এ প্রসঙ্গে এখনও কিছু জানানো হয়নি। বাংলার বিধানসভা ভোটের আগেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন রূপালি পর্দার তারকা মিঠুন চক্রবর্তী। তার পর থেকেই বিভিন্ন এলাকায় ভোট প্রচারে তাঁকে ব্যবহার করেছে গেরুয়া শিবির। পাহাড় থেকে সমতল, জঙ্গলমহল থেকে সমুদ্রতট, সর্বত্রই প্রচার সেরেছেন তিনি। কেউ কেউ বলেছেন, মহাগুরু বিজেপির তুরুপের তাস। এমন পরিস্থিতিতে ভোটগণনার আগের দিন রাজভবনে তাঁর আগমন নিসন্দেহে তাত্‍পর্যপূর্ণ বলে দাবি রাজনৈতিক মহলের।

যদিও সূত্রের খবর, রাজ্যপালের আমন্ত্রণের রাজভবনে এসেছেন 'মহাগুরু'। প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগে খবর ছড়িয়ে পড়েছিল যে, করোনা (CoronaVirus) আক্রান্ত হয়েছেন মহাগুরু। হোম আইসোলেশনে রয়েছেন তিনি। ফলে আদৌ তিনি ভোট দিতে পারবেন কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছিল। যদিও আগেই মহাগুরুর পরিবারের তরফে জানানো হয়েছিল, করোনা সংক্রমণের তথ্য সম্পূর্ণ ভুয়ো। সুস্থ রয়েছেন মিঠুন। ২৯ এপ্রিল ভোটাধিকার প্রয়োগও করবেন তিনি।

বৃহস্পতিবার সকাল ৭. ৫০ নাগাদ নিজের বুথে যান অভিনেতা। ভোট দেন তিনি। বলেন, 'এতটা শান্তিপূর্ণ ভোট আগে কখনও হয়নি।' সকলের উদ্দেশে 'মহাগুরু'র বার্তা, 'ভালভাবে ভোট দিন, ওটা আপনার অধিকার।' প্রত্যেককে সকাল সকাল ভোটদানের কথাও বলেন তিনি। এর পর রাজ্যপালের সঙ্গে দেখাও করলেন তিনি। দুজনের মধ্যে বেশকিছুক্ষণ আলোচনাও হয় বলে খবর। কিন্তু কী বিষয়ে আলোচনা হয়েছে, তা এখনও স্পষ্ট নয়।