নুসরত জাহান হতে চলেছেন মা! টলিপাড়ার অন্দরে জোর শোরগোল

নুসরত জাহান হতে চলেছেন মা! টলিপাড়ার অন্দরে জোর শোরগোল

শুক্রবার সকাল থেকেই টলিপাড়ার অন্দরে জোর শোরগোল। ফিসফাসও কম নয়! কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, নুসরত জাহান (Nusrat Jahan) নাকি মা হতে চলেছেন। সাংসদ-অভিনেত্রী নিজে যদিও এই প্রসঙ্গে মুখে কুলুপ এঁটেছেন। তবে, ঘনিষ্ঠমহল বলছে, যশ দাশগুপ্ত (Yash Dasgupta) ও নুসরত জুটির জীবনে নয়া অধ্যায়ের সূচনা হতে চলেছে। আগমন ঘটতে চলেছে নতুন অতিথির।

এক মাস আগেই নাকি এই সুখবর পেয়েছেন তাঁরা। ভোটপর্ব মেটার পর দিন কয়েক অন্তরালেই ছিলেন বসিরহাটের সাংসদ। সোশ্যাল মিডিয়াতেও বর্তমানে খুব একটা সক্রিয় নন তিনি। উপরন্তু বিগত কয়েক মাস ধরেই নুসরতের ব্যক্তিগত জীবনে টানাপোড়েন চলছে। নিখিলের সঙ্গে কথাবার্তা, মুখ দেখাদেখি একেবারে বন্ধ। আইনত যদিও এখনও বিবাহ বিচ্ছেদ হয়নি তাঁদের।

এপ্রসঙ্গে স্বামী নিখিল জৈন (Nikhil Jain) জানিয়েছেন, তিনি নুসরতের সন্তানসম্ভবা হওয়ার বিষয়ে কিছুই জানেন না। কারণ, মাস খানেক ধরেই তাঁদের মধ্যে কথাবার্তা একেবারে বন্ধ। প্রসঙ্গত, 'SOS কলকাতা' সিনেমার শুটিংয়ের সময় থেকেই নাকি যশ দাশগুপ্তের সঙ্গে নুসরতের ঘনিষ্ঠতা বাড়ে। ফলে স্বামী নিখিল জৈনের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হয়। এরপর যশ-নুসরত রাজস্থান ট্যুরেও গিয়েছিলেন।

আজমেঢ় শরীফ থেকে শুরু করে কালীঘাটেও তাঁদের একসঙ্গে পুজো দিতে দেখা যায়। গোড়ার দিকে সম্পর্ক নিয়ে রাখঢাক করলেও পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিকবার দুজনের পোস্টে প্রেম করার ইঙ্গিত মিলেছে। উল্লেখ্য, যশ-নুসরতের রাজনৈতিক মতাদর্শও ভিন্ন। নুসরত যেখানে তৃণমূল সাংসদ, প্রতিনিয়ত বিজেপিকে কটাক্ষ করতে ছাড়েন না, সেখানে বিধানসভা ভোটের আগে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন যশ।

এমনকী, চণ্ডীতলা কেন্দ্র থেকে গেরুয়া শিবিরের হয়ে প্রতিদ্বন্দিতা করে ভোটে হেরেওছেন। সেই প্রেক্ষিতে, অনেকেই যশ-নুসরতের সম্পর্ক নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। কিন্তু অভিনেতা আগেভাগেই খোলসা করে দিয়েছেন যে দুইজন দুই রাজনৈতিক দলের হলেও তাঁদের বন্ধুত্বে তাঁর কোনও প্রভাব পড়বে না। তবে এবার শোনা যাচ্ছে প্রেম গড়িয়ে সেই সম্পর্কে এক নতুন শীলমোহর বসতে চলেছে। যশ-নুসরতের জীবনে আসতে চলেছে এক নয়া অতিথি।