নদিয়ায় এক মহিলাসহ দু'জনকে কোপ মারার অভিযোগ

নদিয়ায় এক মহিলাসহ দু'জনকে কোপ মারার অভিযোগ

জমি বিবাদের জেরে নবদ্বীপ ব্লকের বাহিরচড়ায় মহিলাসহ দুজনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপ মারার অভিযোগে মূল অভিযুক্ত সহ চারজনের বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার অভিযোগ দায়ের করলো পরিবারের পক্ষ থেকে নবদ্বীপ থানায়। ঘটনায় জালুয়া বিবি ও তাঁর ছেলে মাজিদুল সেখ কে স্থানীয় ও পরিবারের লোকেরা আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে নবদ্বীপ স্টেট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়।

বর্তমানে এখন সেখানেই তাঁরা চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। পাশাপাশি জালুয়া বিবির স্বামী মালেক সেখ বুধবার নবদ্বীপ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেন। তিনি প্রতিবেশী মোরসেদ সেখ ও তাঁর ছেলে বাবু শেখ, মদন শেখ ও মোরসেদ সেখের স্ত্রী মৈরন বিবির বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ পেয়েই তদন্তে নামে নবদ্বীপ থানার পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নবদ্বীপ ব্লকের ফকির ডাঙ্গা ঘোলা পাড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের বাহিরচড়া গ্রামে মোরসেদ সেখ ও মালেক সেখের একটি পাশাপাশি জমি রয়েছে। মালেক সেখের অভিযোগ, মোরসেদ শেখের ছেলে এবং মোরসেদ মিলে তাঁদের আল কেটে নেয়। এরই প্রতিবাদ করতেই তাঁরা আমার স্ত্রী এবং ছেলের উপরে বাঁশ এবং ধারালো অস্ত্র নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে।

গুরুতরভাবে জখম হয় মালেক সেখের স্ত্রী জালুয়া বিবি ও তাঁর ছেলে মাজিদুল। বর্তমানে তাঁরা এখন নবদ্বীপ স্টেট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। যদিও বা অল্পবিস্তর আঘাত লাগে মোরসেদ সেখ ও তাঁর ছেলে বাবুর সেখ এর।তবে এ বিষয়ে মালেক সেখের ছেলে এবং মালেক সেখ আমাদের ক্যামেরার সামনে কি জানালেন শুনে নিই।