সোশ্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষের শিকার নীতু কাপুর

সোশ্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষের শিকার নীতু কাপুর

সোশ্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষ, ব্যঙ্গ, বিদ্রুপের পালা চলতেই থাকে। ভারচুয়াল জগতের আড়ালে অনেকেই কুমন্তব্য করে থাকেন। এই কুমন্তব্যের শিকার সবচেয়ে বেশি হয়ে থাকেন তারকারাই। সারাক্ষণই যেন আতস কাঁচের তলায় থাকে তাঁদের জীবন। এমনই অভিজ্ঞতা হয়েছিল নীতু কাপুরের (Neetu Kapoor)। বিশেষ করে স্বামী ঋষি কাপুরের (Rishi Kapoor) মৃত্যুর পর।

“বিধবা হওয়ার পরও এত আনন্দ কীসের?” এই প্রশ্ন করা হয়েছিল বর্ষীয়ান অভিনেত্রীকে।  বলিউডে কাপুর পরিবারের ঐতিহ্য রয়েছে। সেই পরিবারের উত্তরসূরি ঋষি কাপুর। তবে নিজের দক্ষতায় অভিনেতা হিসেবে সুনাম কুড়িয়েছেন এই কাপুর। কয়েক দশকের কেরিয়ারের দৌলতে আলাদা পরিচিতি গড়ে তুলেছেন। দীর্ঘদিন ধরেই ক্যানসারে ভুগছিলেন ঋষি কাপুর।

২০২০ সালের তিরিশে এপ্রিল মুম্বইয়ের হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। ১৯৮০ সালে ঋষি কাপুরের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল নীতু কাপুরের। আমৃত্যু স্বামীর পাশে ছিলেন। কিন্তু প্রিয় মানুষটার মৃত্যুর পর সোশ্যাল মিডিয়ায় নানা কুকথা শুনতে হয় বর্ষীয়ান অভিনেত্রীকে।  সাম্প্রতিক সাক্ষাৎকারে নীতু কাপুর জানান, ঋষি কাপুরের চলে যাওয়া তিনি এখনও মেনে নিতে পারেননি।

শুধু তিনি কেন, তাঁর পরিবারের কেউই মেনে নিতে পারেননি। এখনও খাওয়ার টেবিলে ঋষি কাপুরকে নিয়ে আলোচনা হয়। প্রত্যেকে নিজের মতো করে শোক, দুঃখের মোকাবিলা করেন। কেই কেঁদে আবেগ জাহির করেন, কেউ হাসিমুখে যন্ত্রণা সহ্য করেন। নীতু জানান, তিনি হাসিমুখেই নিজের যন্ত্রণা ভুলতে চান। কিন্তু এর জন্যই তাঁকে কটাক্ষের শিকার হতে হয়েছে।  

অবশ্য, এমন মন্তব্যে দমে যাওয়ার পাত্রী নন নীতু কাপুর। নিজেকে সামলে আমার কাজের জগতে ফিরেছেন তিনি। রিয়ালিটি শোয়ের বিচারক হিসেবে দেখা গিয়েছে তাঁকে। মুক্তির অপেক্ষায় নতুন ছবি ‘যুগ যুগ জিও’ (Jug Jugg Jeeyo)। রাজ মেহতা পরিচালিত এই ছবিতে নীতু কাপুর ছাড়াও রয়েছেন অনিল কাপুর, বরুণ ধাওয়ান, কিয়ারা আডবাণী, প্রাযক্তা কোহলি এবং মণীশ পল।