পুষ্টিগুণেভরা মুগডাল

পুষ্টিগুণেভরা মুগডাল

কার্বোাইড্রেট থেকে প্রোটিন পুষ্টিতে ভরপুর মুগডাল। নিরামিষের সুপার ফুড বলা হয় এই মুগডালকে। মুগ ডাল অনেক রোগ উপশম করে। এই ডালটি নিয়মিত খেলে শরীরের কোনও ক্ষতি তো হয়ই না, উল্টে একাধিক উপকার পাওয়া যায়।  চলুন জেনে নেওয়া যাক মুগডালের উপকারিতা সম্পর্কে কিছু তথ্য—

হার্টের ভালো রাখতে :  বর্তমানে হার্টের রোগে আক্রান্তের সংখ্যাটা প্রচুর পরিমাণে বাড়ছে। এমন পরিস্থিতিতে নিয়মিত মুগ ডাল খাওয়ার প্রয়োজনও বেড়েছে। কারণ এই ডালটিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার যা রক্তচাপকে স্বাভাবিক মাত্রায় নিয়ে আসে এবং শরীরে উপস্থিত খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে যার ফলে হার্ট ভালো থাকে। 

ওজন কমায় :  ওজন কমাতে মুগ ডাল খুবই উপকারী। এবং  হজমেও সাহায্য করে মুগডাল। এবং হজম ভালো হলে শরীর সুস্থ থাকে। 

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে :  যে সমস্ত মানুষের ডায়াবেটিস রয়েছে তাঁদের দেহে যাতে ইনসুলিনের পরিমাণ ঠিক থাকে বিশেষজ্ঞরা সেই কারণে মুগ ডাল খাবার পরামর্শ দেন। 

অ্যানিমিয়া দূর করে : প্রচুর মাত্রায় আয়রন থাকার কারণে নিয়মিত মুগ ডাল খেলে শরীরে লোহিত রক্ত কণিকার উৎপাদন বেড়ে যায়। ফলে অ্যানিমিয়ার মতো রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। 

হাড়ের ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় : মুগ ডালে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে  ক্যালসিয়াম। এর ফলে হাড়ের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটে এবং হাড়ের ক্ষমতা বৃদ্ধিতেও বিশেষ ভূমিকা নেয়। 

গর্ভাবস্থায় : গর্ভবতী নারীদের জন্য মুগ ডাল অনেক উপকারী।  মুগ ডালে প্রচুর পরিমাণে ফোলেট থাকে। আর গর্ভাবস্থায় নারীদের প্রচুর পরিমাণে ফোলেটযুক্ত খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকেরা।

১০০ গ্ৰাম মুগডালে যে পরিমাণ পুষ্টিগুণ রয়েছে তা হল— শর্করা ৬২.৬২ গ্ৰাম, ফ্যাট ১.১৫ গ্ৰাম, প্রোটিন ২৩.৮৬ গ্ৰাম, ক্যালসিয়াম ১৩২ মিলিগ্ৰাম, আয়রন ৬.৭৪ গ্ৰাম, জিঙ্ক ২.৬৮ গ্ৰাম।