প্রথম দিনেই ডোনাল্ড ট্রাম্পএর ১৫ নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর জো বাইডেনের

প্রথম দিনেই ডোনাল্ড ট্রাম্পএর ১৫ নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর জো বাইডেনের

৪৬তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেওয়ার পর প্রথম দিন ১৫টি নির্বাহী আদেশ ও দুটি দাপ্তরিক নথিতে স্বাক্ষর করেছেন জো বাইডেন।  তার মধ্যে অন্যতম হলো প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফিরে যাওয়া এবং তথাকথিত মুসলিম নিষেধাজ্ঞা রদ করা। ২০১৭ সালে মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ সাতটি দেশ থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করে একটি আদেশে স্বাক্ষর করেন ট্রাম্প।

সেই আদেশ বাতিল করে দিলেন জো বাইডেন। অবশ্য ট্রাম্পের সেই আদেশ আইনি চ্যালেঞ্জের কারণে বেশ কয়েকবার পরিবর্তন করা হয়েছিল এবং শেষ পর্যন্ত ২০১৮ সালে মার্কিন সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে বহাল রাখা হয়েছিল। শপথ নেওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই জো বাইডেন  ডোনাল্ড ট্রাম্পের মূলনীতিগুলো উল্টে দেওয়া শুরু করেছেন। তার মধ্যে অগ্রাধিকার পেয়েছে অভিবাসন সংক্রান্ত ট্রাম্পের একগুঁয়ে নীতি উল্টে দেওয়ার বিষয়টি।

হোয়াইট হাউসে বাইডেনের প্রেস সেক্রেটারি জেন পিসাকি বলেছেন, মুসলিম নিষেধাজ্ঞার বিষয়টির ইতি টেনেছেন প্রেসিডেন্ট। ধর্মীয় শত্রুতা ও বিদ্বেষ থেকে সরে আসার জন্য তিনি এ পদক্ষেপ নিয়েছেন।স্থানীয় সময় বুধবার (২০ জানুয়ারি) ওভাল অফিসে এসব আদেশে সই করেন তিনি।

প্রথম দিনে নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষরের দিক থেকে ডোনাল্ড ট্রাম্প ও বারাক ওবামাকে পেছনে ফেলেছেন বাইডেন। ট্রাম্প শপথ গ্রহণের পর দুই সপ্তাহে ৮টি এবং বারাক ওবামা ৯টি নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছিলেন। এসব নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে বাইডেন বুঝিয়ে দিলেন, ট্রাম্পের নীতি পাল্টে দিতে তিনি দেরি করতে রাজি নন।

শপথগ্রহণের পর ওভাল অফিসে গিয়েই একের পর এক নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করে বাইডেন বলেন, 'অপচয় করার মতো সময় নেই। অবিলম্বে কাজ করতে হবে।' করোনা মহামারির সংক্রমণরোধে কেন্দ্রীয় সরকারের দপ্তরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেছেন বাইডেন। সংক্রমণ রোধে সবাইকে মাস্ক পরার আহ্বান জানান সদ্য দায়িত্ব নেওয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক সংক্রান্ত নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করেছেন জো বাইডেন। যুক্তরাষ্ট্রকে প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে ফিরিয়ে আনার কাজ শুরু করে দিয়েছেন তিনি। এ চুক্তিতে ফেরার বিষয়ে জাতিসংঘে নোটিশ পাঠানো হয়েছে। ডোনাল্ড ট্রাম্পের নেতৃত্বে গত বছর ওই চুক্তি থেকে বের হয়ে গিয়েছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করার যে প্রক্রিয়া ট্রাম্প শুরু করেছিলেন, তা থামাতেও পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এছাড়া, বেশ কয়েকটি মুসলিম দেশের পর্যটকদের মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে ট্রাম্পের জারি করা ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হবে জানিয়েছে বাইডেন প্রশাসন। অবৈধ অভিবাসীদের ঢল ঠেকাতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে ট্রাম্পের আদেশ স্থগিত করার কথা চলছে।