হাফিজ সইদকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিল পাকিস্তানের সন্ত্রাসবিরোধী আদালত

হাফিজ সইদকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দিল পাকিস্তানের সন্ত্রাসবিরোধী আদালত

ইসলামাবাদ : পাকিস্তানের একটি সন্ত্রাসবিরোধী আদালত  জামাত-উদ-দাওয়া প্রধান এবং মুম্বই হামলার মাস্টারমাইন্ড হাফিজ সইদকে ১০ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত করেছে। অবৈধ তহবিল মামলায় এই সাজা পেয়েছে সে। আজ মোট দুটি মামলায় জামাত-উদ-দাওয়ার প্রধান সাজা পেয়েছে।

তবে এই প্রথম নয় যখন পাকিস্তানের আদালত সন্ত্রাসবাদ মামলায় লস্কর-ই-তইবার শীর্ষস্থানীয় সংগঠন জামায়াত-উদ-দাওয়ার প্রধান হাফিজ সাইদকে সাজা শুনিয়েছে। ফেব্রুয়ারিতে, হাফিজ সইদ এবং তার সহযোগীদের কয়েকজনকে টেরর ফান্ডিং মামলায় দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল এবং তাদের ১১ বছরের কারাবাসের সাজা দেওয়া হয়েছিল।

২০০৮ সালে মুম্বই হামলার মূল পরিকল্পনাকারী হল হাফিদ সইদ। রাষ্ট্রসংঘ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র উভয়ই সইদক আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী ঘোষণা করেছে। গত বছরের জুলাইয়ে সন্ত্রাসবাদে অর্থ দেওয়ার অভিযোগে হাফিজ সইদকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল। 

জঙ্গিদের আর্থিক মদত দেওয়া বন্ধ করার ব্যাপারে নির্দেশিত পদক্ষেপগুলি করতে না পারলে পাকিস্তানকে কালো তালিকাভুক্ত করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে ইতিমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছে  সন্ত্রাসে আর্থিক জোগানের উপর নজরদারি চালানো আন্তর্জাতিক সংস্থা ফাইনান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স (এফএটিএফ)।

সন্ত্রাস দমনে তাদের ভূমিকা নিয়ে বরাবরই আন্তর্জাতিক মহলে সমালোচিত পাকিস্তান। তা সত্ত্বেও ২৬/১১-র মূল চক্রী হাফিজ সে দেশে নিরাপদ আশ্রয়ে রয়েছে। সেখানে বসেই জামাত-উদ-দাওয়া এবং লস্কর-ই-তৈবা, এই দুই সংগঠন চালান তিনি। সন্ত্রাসদমন আইন অনুযায়ী, এই দু’টি সংগঠনই নিষিদ্ধ পাকিস্তানে।