মালদায় পুলিশের তল্লাশি অভিযানে বন্দুক এবং গুলি সহ ধৃত ২

মালদায় পুলিশের তল্লাশি অভিযানে বন্দুক এবং গুলি সহ ধৃত ২

 তনুজ জৈন  মালদা:  মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পরেই পুলিশি অভিযান। আগ্নেয়াস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ২। ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। চাঞ্চল্য এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকায়। হরিশ্চন্দ্রপুরের নানারাই এলাকা থেকে গ্রেপ্তার হয়েছে জিয়াউল হক(৩৬) এবং ভালুকা সোনাপুর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার হয়েছে গোলাম সারওয়ার(২৪)।

দুই জনের কাছ থেকেই একটি করে ওয়ান শাটার বন্দুক এবং দুই রাউন্ড গুলি উদ্ধার হয়েছে। ধৃতদের পুলিশি হেফাজতে চেয়ে চাঁচল মহকুমা আদালতে পেশ করেছে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ। উল্লেখ্য, এই মুহূর্তে রামপুরহাট কাণ্ড নিয়ে উত্তাল সারা রাজ্য। রামপুর হাটে গিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি নির্দেশ দেন রাজ্যের যেখানে যেখানে অবৈধ ভাবে বোমা-গুলি আগ্নেয়াস্ত্র মজুত আছে সেগুলি দ্রুত উদ্ধার করতে হবে। নাতো ক্রমশ রাজ্যের আইন শৃঙ্খলার অবনতি ঘটছে। আর মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পর এই অভিযানে নেমে পড়ে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ।

বিশেষ সূত্রে খবর পেয়ে তল্লাশি অভিযান চালিয়ে এই দুই জনকে বন্দুক এবং গুলি সহ গ্রেপ্তার করা হয়। কী উদ্দেশ্যে তারা নিজেদের কাছে বন্দুক রেখেছিল বা কোথা থেকে এলো এই বন্দুক গুলি তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। হরিশ্চন্দ্রপুরের পাশেই বিহার সীমান্ত। এই এলাকার বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজ কর্মের ক্ষেত্রে বিহার যোগ থাকে।

এক্ষেত্র বিহারের যোগসূত্র আছে কিনা সেটা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্জয় কুমার দাস বলেন, আগ্নেয়াস্ত্র সহ দুইজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ধৃত দুইজনকে চাঁচল মহকুমা আদালতে তোলা হয়েছে।আমরা সমস্ত ঘটনা তদন্ত করছি। একই দিনে হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকার দুই জায়গা থেকে আগ্নেয়াস্ত্র সহ গুলি উদ্ধার হওয়াই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকা জুড়ে।