শেষপর্যন্ত সোনার বুটের মালিক রোনাল্ডোই

শেষপর্যন্ত সোনার বুটের মালিক রোনাল্ডোই

এবারের মতো শেষ ইউরো কাপ (Euro 2020)। ইংল্যান্ডকে (England) ট্রাইবেকারে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন ইটালি (Italy)। কিন্তু ওয়েম্বলিতে ফাইনালের রাতে উপস্থিত না থাকলেও আলোচনার কেন্দ্রে কিন্তু ঢুকে পড়েছেন তিনি। যাঁকে ২০১৬ সালের ইউরোতে কাপ হাতে কাঁদতে দেখেছিল গোটা ফুটবল বিশ্ব। তিনি আর কেউ নন, পর্তুগিজ মহাতারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো (Cristiano Ronaldo)। প্রি-কোয়ার্টার থেকে বিদায় নিলেও ৩৬ বছর বয়সি রোনাল্ডোকে গোল করার ক্ষেত্রে টপকাতে পারলেন না কেউই।

ফলে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোলদাতা হওয়ায় এবারের ইউরোর সোনার বুটটি জিতলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। টুর্নামেন্টে পাঁচটি গোল এবং একটি অ্যাসিস্ট রয়েছে তাঁর নামের পাশে। বেলজিয়ামের কাছে হেরে প্রি-কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই বিদায় নিয়েছিল পর্তুগাল। মন খারাপ হয়ে গিয়েছিল ফুটবল অনুরাগীদের। কারণ অবশ্যই দুরন্ত ফর্মে থাকা পর্তুগিজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর বিদায়। টুর্নামেন্টের শুরু থেকে একাধিক রেকর্ড ভেঙে দিলেও সেদিনের ম্যাচের অনেকেই হয়তো ইউরো দেখা বন্ধও করে দিয়েছিলেন।

কারণ প্রিয় তারকাই তো নেই। এরপর যদিও টুর্নামেন্ট আপন নিয়মেই এগিয়ে গিয়েছে। ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছে ইংল্যান্ড-ইটালি। যেখানে ট্রাইবেকারে চ্যাম্পিয়ন রবার্তো ম্যানচিনির দল। কিন্তু ফাইনালের রাতে ওয়েম্বলিতে না থেকেও যেন রয়ে গেলেন সিআর সেভেন। কারণ এবারের টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ গোলদাতা যে তিনিই। হ্যাঁ, তাও মাত্র চারটি ম্যাচ খেলেই। চেক প্রজাতন্ত্রের প্যাট্রিক শিক (৫টি গোল, ০ অ্যাসিস্ট), রিয়াল মাদ্রিদের প্রাক্তন সতীর্থ তথা ফ্রান্সের করিম বেনজিমারা (৪টি গোল, ০ অ্যাসিস্ট) কাছাকাছি থাকলেও টপকাতে পারলেন না ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর নামের পর্বতকে।

আর তাই শেষপর্যন্ত অনেক আগেই বিদায় নিলেও ফাইনালেও উচ্চারিত হল সিআর সেভেনের নাম। রবিবার ভোরেই চির-প্রতিদ্বন্দ্বী লিওনেল মেসিকে নিয়ে মত্ত ছিল ফুটবল বিশ্ব। কারণ আন্তর্জাতিক ট্রফির খরা কাটিয়ে প্রথমবার আর্জেন্টিনাকে কাপ এনে দিতে পেরেছেন এলএম টেন। কিন্তু রাতেই ফের শিরোনামে চলে এলেন পর্তুগিজ মহাতারকা। ফলে বলাই যায় বয়স বাড়লেও দুই তারকাই এখনও একে-অপরকে টেক্কা দেন।

এদিকে, টুর্নামেন্টের সেরা ফুটবলারের পুরস্কার উঠেছে ইটালির গোলরক্ষক দোনুরোমার হাতে। তিনি টুর্নামেন্টে মোট ৯টি নিশ্চিত গোল বাঁচিয়েছেন। ফাইনালে ট্রাইবেকারে আবার জোড়া পেনাল্টি আটকে দেন দোনারুমা। তিনটি ম্যাচে কোনও গোল খাননি। গোটা টুর্নামেন্টে মাত্র ৪টি গোল হজম করেছেন তিনি। এছাড়া ইউরোর সেরা তরুণ ফুটবলারের পুরস্কার জিতেছেন স্পেনের পেদ্রি। এছাড়া স্টার অফ দ্য ফাইনালের পুরস্কার জিতেছেন সবথেকে বেশি বয়সে ইউরো ফাইনালে গোল করা বোনুচ্চি।

ইউরো ২০২০-র পুরস্কার তালিকা:

চ্যাম্পিয়ন: ইতালি।
রানার্স: ইংল্যান্ড।
স্টার অফ দ্য ফাইনাল: লিওনার্দো বোনুচ্চি।
টুর্নামেন্টের সেরা: দোনুরোমা।
গোল্ডেন বুট: ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো।
সেরা তরুণ ফুটবলার: পেদ্রি।