সাফল্যের শিখরে পৌঁছে দিতে পারেন সূর্যদেব

সাফল্যের শিখরে পৌঁছে দিতে পারেন সূর্যদেব

সৌরমণ্ডলের রাজা সূর্যদেব। ১৫ কোটি কিলোমিটার দূরে থেকেও পৃথিবী এবং সৌরমণ্ডলের ওপর প্রভাব প্রবল। সূর্য পৃথিবীর প্রাণ ও শক্তির আধার। বাস্তব ক্ষেত্রে সূর্যদেবের প্রভাব কারও অজানা না। কাশ্যপ এবং অদিতির পুত্র সূর্যদেব। কোনও এক সঙ্কটের সময় অদিতি সূর্যদেবকে তাঁর গর্ভস্থ সন্তান রূপে জন্ম নেওয়ার জন্য প্রার্থনা করেন। সূর্যদেব সম্মত হন এবং আদিত্য নামে অদিতির পুত্র হিসাবে জন্ম নেন এবং সঙ্কট মোচন করেন।

সূর্যদেবের সাতটি সবুজ ঘোড়া সাত রশ্মি, গায়েত্রি, ত্রিস্তুপ, অনুষ্টুপ, জাগতি, পাঙ্কতি, ব্রিহতি, এবং উশ্নিক। সূর্যদেব লাল পদ্মাসনে, দুই হাতে লাল পদ্ম। সূর্যদেব ১২ মাসে ১২ রাশিতে অবস্থান করেন। ভিন্ন রাশিতে ভিন্ন ফল দান করেন। সূর্যদেবের অধিদেবতা অগ্নি, প্রত্যাধিদেবতা ভগবান শিব।

মানব জীবনে সূর্যের(রবির) শুভ প্রভাব যেমন উন্নতি এবং সাফল্যের শিখরে পৌঁছে দিতে পারে, ঠিক তেমনই অশুভ প্রভাব অশুভ ভাবে প্রতিফলিত হয়। রবি তেজদাতা ও তেজময়। রবির শুভ প্রভাব উদ্দিপনা ও আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি করে। তেজময় সূর্যদেব(রবি) বাইরে এত তেজী হলেও অন্তরে কোমল। তাইরোজ নিষ্ঠাভাবে সামান্য প্রণামেই মেলে সূর্যদেবের কৃপা।

রোজ নিষ্ঠার সঙ্গে সূর্য প্রণাম রোগ, দারিদ্র হনন করে। অবিচল উপাসনা বাধা, বিঘ্ন নাশ করে আকাঙ্খা পূর্ণ করে। সূর্যদেবের প্রিয় রং লাল, লাল জবা ফুলেই তুষ্ট সূর্যদেব। প্রিয় ধাতু তামা। রোজ তামার পাত্রে জল এবং লাল জবাফুল সহযোগে ব্রহ্ম মুহূর্তে(সূর্য উদয়ের ৪৮ মিনিট আগে থেকে সূর্য উদয়ের মুহূর্ত পর্যন্ত ব্রাহ্ম মুহূর্ত) বা সূর্যোদয়ের মুহূর্তে সূর্য প্রণামে তাঁর কৃপা লাভ করা যায়। একমুখি রুদ্রাক্ষ ধারণ করলে সুফল মেলে।

প্রত্যেকেই সূর্য প্রণাম করতে পারেন, ফল শুভ পাবেন। সূর্য প্রণামের নির্দিষ্ট মন্ত্র আছে। মন্ত্র উচ্চারণ নির্ভুল হতে হবে, অবশই সুফল পাবেন।

ধন, বৈভব, যশের কামনা করে থাকলে রবিবারের দিন প্রত্যক্ষ দেবতা সূর্যের সাধনা করতে ভুলবেন না। এদিন, বিধি অনুযায়ী পুজো ও উপোস করলে সমস্ত বাধা দূর হয় ও সরকারি চাকরি ও ব্যবসায় সাফল্য হাতে আসে।

রবিবার স্নান করে সূর্যকে জলের অর্ঘ্য দেওয়া উচিত। শুধু রবিবারই নয়, রোজ এই অর্ঘ্য দেওয়া উচিত। ধর্মীয় ধ্যান-ধারণা অনুযায়ী, নিয়মিত জলের অর্ঘ্য দিলে সূর্য খুশি হন।

সূর্য উপাসনায় মন্ত্র জপ করলে মনোকামনা শীঘ্র পুরো হয়। সুখ-সমৃদ্ধি, উন্নত স্বাস্থ্য ও সরকারি চাকরির জন্য সূর্যের মন্ত্র উপযোগী। এই মন্ত্রটি হল—

এহি সূর্য সহস্ত্রাংশো তেজোরাশো জগত্পতে।

অনুকম্পয় মাঁ ভক্ত্যা গৃহণাধ্য্র দিবাকর।।

ওম ঘৃণি সূর্যায় নমঃ।।

ওম এহি সূর্য সহস্ত্রাংশো তেজোরাশো জগত্পতেয় অনুকম্পয়েমাং ভক্ত্যায় গৃহাণার্ধয় দিবাকররু।।

ওম হৃীং ঘৃণিঃ সূর্য আদিত্যঃ ক্লীং ওম।।

সূর্যকে প্রসন্ন করার জন্য রবিবার গুড় দান করা উচিত। এদিন দান করার বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। ব্যক্তি নিজের ইচ্ছানুযায়ী দান করতে পারেন।

কমলা সূর্যের রং। রবিবারের দিন তাই এই রঙের কাপড় পড়া উচিত।