নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বের প্রশংসায় পুতিন

নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বের প্রশংসায় পুতিন

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বের ব্যাপক প্রশংসা করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। পাশাপাশি ভারতের ‘স্বাধীন’ পররাষ্ট্রনীতিরও প্রশংসা করেছেন তিনি। রাশিয়াভিত্তিক গণমাধ্যম রাশিয়া টুডে (আরটি)  এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।  কালিনিনগ্রাদে ‘রুশ শিক্ষার্থী দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে মত বিনিময়কালে পুতিন এসব কথা বলেন।

 রুশ প্রেসিডেন্টে বলেন, 'আর্থিক বৃদ্ধির হারে বিশ্বে অন্য়তম সেরা ভারত। এবং এটি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তত্ত্বাবধানে সম্ভব হয়েছে। তাঁর মেয়াদেই ভারত এই গতি ছুঁতে পেরেছে।' পাশাপাশি, বিদেশনীতির প্রশ্নেও নয়াদিল্লির উপর আস্থার বার্তা দেন পুতিন। বলেন, 'ভারত স্বাধীন ভাবে বিদেশনীতি বজায় রাখছে কিনা আজকের বিশ্বে অত্যন্ত কঠিন। কিন্তু দেড়শো কোটি মানুষের বাস যে দেশে, সেই ভারতের এই অধিকার রয়েছে।

এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তত্ত্বাবধানে সেই অধিকার প্রয়োগ করেছে ভারত।' ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ শুরুর পর থেকে যখন আমেরিকা-সহ পশ্চিম ইউরোপের দেশগুলি রাশিয়ার উপর একের পর এক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করছে, তখন ভারত কেন স্পষ্ট ভাষায় 'রুশ আগ্রাসনের' বিরোধিতা করেনি, এই নিয়ে তীব্র সমালোচনা তৈরি হয়। শুধু তাই নয়। কেন নয়াদিল্লি তেল কেনার ব্যাপারে মস্কোর উপর ভরসা করছে, তা নিয়েও আন্তর্জাতিক মহলের বিরাগভাজন হতে হয়েছে ভারতকে।

কিন্তু নয়াদিল্লির তরফে স্পষ্ট বুঝিয়ে দেওয়া হয়, দেশের স্বার্থে যে সিদ্ধান্ত নেওয়া জরুরি, তা থেকে কোনও অবস্থাতেই পিছু হঠা হবে না। তেলের ব্যাপারে ভারতকে বিদেশ থেকে আমদানির উপর ভরসা করতে হয়। তাই জনগণের চাহিদা মেটাতে, যেখান থেকে তুলনামূলক ভাবে সস্তায় তেল পাওয়া যাবে, সেখান থেকে তা আমদানি করার সিদ্ধান্তে আপস করতে নারাজ নয়াদিল্লি। তা ছাড়া, ইতিহাসগত ভাবে দেখলে মস্কো যে নয়াদিল্লির 'বন্ধু', সে কথা তীব্র চাপের মুখেও ভোলেনি ভারত।

পুতিনের কথায় সেই সমস্ত কিছুরই ছাপ মিলেছে, ব্যাখ্যা রাজনৈতিক মহলের। রুশ প্রেসিডেন্টের মতে, 'সহযোগিতার প্রশ্নে আমরা কী ভাবে কোনও দেশ ও তার নেতৃত্বের উপর ভরসা করতে পারি? যদি এমন দাঁড়ায়, সে সেই দেশ নিজের স্বার্থের কথাও চিন্তা না করে কোনও সিদ্ধান্ত নিচ্ছে, তা হলে? ভারতের ক্ষেত্রে এই সব ছলচাতুরি হয় না।' এদেশের 'মেক ইন ইন্ডিয়া' উদ্যোগের প্রশংসা করে পুতিন জানান, রাশিয়া এদেশের অন্যতম বৃহৎ বিনিয়োগকারী। ভবিষ্যতে আরও বেশি বিনিয়োগের কথাও ভাবা হচ্ছে। ভারতীয় ছবি যে রাশিয়ায় 'ব্রডকাস্ট' হয়, সে কথাও মনে করান তিনি। এদেশের সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্যেরও প্রশংসা শোনা যায়।

আরো পড়ুন      জীবনী  মন্দির দর্শন  ইতিহাস  ধর্ম  জেলা শহর   শেয়ার বাজার  কালীপূজা  যোগ ব্যায়াম  আজকের রাশিফল  পুজা পাঠ  দুর্গাপুজো ব্রত কথা   মিউচুয়াল ফান্ড  বিনিয়োগ  জ্যোতিষশাস্ত্র  টোটকা  লক্ষ্মী পূজা  ভ্রমণ  বার্ষিক রাশিফল  মাসিক রাশিফল  সাপ্তাহিক রাশিফল  আজ বিশেষ  রান্নাঘর  প্রাপ্তবয়স্ক  বাংলা পঞ্জিকা