দেশের জনসংখ্যায় প্রবীণদের অবস্থা নিয়ে রাজ্যওয়াড়ি রিপোর্ট প্রকাশ

দেশের জনসংখ্যায় প্রবীণদের অবস্থা নিয়ে রাজ্যওয়াড়ি রিপোর্ট প্রকাশ

দেশের জনসংখ্যায় প্রবীণদের অনুপাতে পয়লা নম্বর রাজ্য রাজস্থান। পশ্চিমবঙ্গ রয়েছে নয় নম্বরে। বুধবার এই রাজ্যওয়াড়ি তালিকা-সহ দেশে প্রবীণদের অবস্থা নিয়ে একটি সামগ্রিক রিপোর্ট প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক উপদেষ্টা পরিষদের চেয়ারম্যান বিবেক দেবরায়। পরিষদের অনুরোধে রিপোর্টটি তৈরি করেছে ইনস্টিটিউট ফর কম্পিটিটিভনেস।

ষাটোর্ধ্ব প্রবীণদের জনসংখ্যার গতিপ্রকৃতি নিরীক্ষা করা ছাড়াও এই রিপোর্টে প্রবীণদের আর্থিক অবস্থা, সামাজিক অবস্থা, স্বাস্থ্য পরিষেবা এবং আয়-সুরক্ষার পরিসংখ্যানভিত্তিক ছবি তুলে ধরা হয়েছে। কোন রাজ্য এর কোন ক্ষেত্রে কেমন ফল করেছে এবং সার্বিক ভাবে দেশে এই ক্ষেত্রগুলি কোনটি কোন স্তরে রয়েছে, তার হিসেবে গড় তৈরি করা হয়েছে রিপোর্টে।

সেখানে দেখা যাচ্ছে, স্বাস্থ্য পরিষেবার জাতীয় গড় ৬৬.৯৭। সামাজিক অবস্থা এর পরেই, ৬২.৩৪। কিন্তু আর্থিক সুরক্ষার গড় আরও নীচে, ৪৪.৭। আরও তলায় আয়-সুরক্ষা, ৩৩.০৩। আয় সুরক্ষায় অর্ধেকেরও বেশি রাজ্যের গড় জাতীয় গড়ের চেয়ে কম। প্রবীণদের জনসংখ্যার ভিত্তিতে রিপোর্টে রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে দু'টি গোষ্ঠীতে ভাগ করা হয়েছে। প্রবীণ এবং মোটামুটি প্রবীণ।

প্রবীণ গোষ্ঠীতে প্রথম তিনে রাজস্থান, মহারাষ্ট্র ও বিহার। ন'নম্বরে পশ্চিমবঙ্গ। রিপোর্টটি প্রকাশ করে আজ বিবেক বলেন, ''প্রবীণদের সমস্যা একটি কম আলোচিত বিষয়। ভারতকে প্রায়শই তরুণ দেশ হিসেবে তুলে ধরা হয়। কিন্তু ভারতেও স্বাভাবিক নিয়মেই প্রবীণের সংখ্যা বাড়ছে।''