এবার চার পাতাবিশিষ্ট গাছের দাম শুনলে আপনার চক্ষু হবে চড়কগাছ

এবার চার পাতাবিশিষ্ট গাছের দাম শুনলে আপনার চক্ষু হবে চড়কগাছ

আজবাংলা  যুগের সাথে যেমন অনেক কিছু বিলুপ্ত হয়েছে, তেমনি সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে নতুন অনেক কিছু সৃষ্টিও হয়েছে। সম্প্রতি নতুন এক প্রজাতির গাছের সন্ধান পাওয়া গেছে। যার দাম শুনলে আপনি হয়তো মূর্ছা যেতেও পারেন। দাম এতই বেশি যে সেই টাকায় আপনি একটি গাড়ি, বিদেশ ভ্রমন ইত্যাদি করে ফেলতে পারবেন অনায়াসেই। সেই গাছটি অনলাইনের নিলামে দাম উঠেছে ৪ লক্ষ টাকা। বিশ্বাস করতে না পারলেও ঘটনাটি একেবারে সত্যি।

অদ্ভুত দেখতে গাছে রয়েছে মাত্র চারটি পাতা। এর চারটি পাতার প্রত্যেকটিতে দু’‌টি পৃথক রং। এমন নতুন বিরল প্রজাতির গাছের সন্ধান মিলেছে, নিউজিল্যান্ডে (New Zealand)। এই গাছটি বিরল প্রজাতির র‌্যাফিডোফোরা টেট্রাসপেরমা (Rhaphidophora Tetrasperma)। সূত্র মারফৎ জানা গিয়েছে, তিনজনে এই গাছটি কিনেছেন। তাদের মধ্যে একজন জানিয়েছেন, একটি সুন্দর ট্রপিক্যাল বাগান তৈরি করা হবে। আবার বাগানের মাঝে থাকবে একটি ছোট রেস্তোরাঁ।

তাতে এমন অনেক রকমের বিরল প্রজাতির গাছ রাখা হবে। এর পাশাপাশি পাখি এবং প্রজাপতিও রাখা হবে। শুধু নিউজিল্যান্ডে নয়, গোটা বিশ্বে এরকম ট্রপিক্যাল বাগান আর কোথাও হয়তো দেখা যাবে না। এখন মানুষের মনে প্রশ্ন জেগেছে, কি এমন আছে যার জন্য গাছের দাম এত? গাছটি হল একেবারে বিরল প্রজাতির। এই গাছটি ফিলোডেন্ড্রন মিনিমা নামেও পরিচিত।

এই প্রসঙ্গে এক পরিবেশবিদ জানান, এই ধরনের গাছের সবুজ অংশে সালোকসংশ্লেষ হয় এবং হলুদ অংশে শর্করা তৈরি হয়। ওখানকার স্থানীয় মুদ্রায় দাম ৮,১৫০ নিউজিল্যান্ড ডলার। আসলে ঘরের মধ্যে রাখা যাবে এমনই একটি ছোট গাছ এটি। এর প্রত্যেক পাতায় পাতায় অদ্ভুতভাবে হলুদ রঙের ছোপ রয়েছে, একেবারে মাঝখান দিয়ে। পাতার অর্ধেকটা সবুজ আর ঠিক অর্ধেকটা হলুদ। এমন রং এই গাছে কখনও বিশ্বে দেখা যায়নি। একটি অনলাইন ট্রেডিং ‘ট্রেড মি’ সাইটে এই গাছটি নিলামে ওঠে।