মালদায় ফিল্মি কায়দায় মদের দোকানে ডাকাতি

মালদায় ফিল্মি কায়দায়  মদের দোকানে ডাকাতি

   হরিশ্চন্দ্রপুরে :  পিস্তল দেখিয়ে বারে ঢুকে লুটপাট। মদের দোকানের কাউন্টার থেকে প্রায় চার লক্ষ টাকা লুট। লুট প্রচুর মদের বোতল। লুট করে যাওয়ার সময় মদও খেয়ে যায় দূস্কৃতীরা।মালদার হরিশ্চন্দ্রপুরের ঘটনা। লুটপাটের সেই সিসিটিভি ফুটেজ আমদের কাছে। সেখানে স্পষ্ট বন্ধ বারের সামনে তাঁরা একে একে জড়ো হয়। পরে মদের দোকানের কাঊন্টারে যায় পিস্তল উঁচিয়ে ভেতরে ঢুকে লুটপাট চালায়।

টাকা এবং মদের বোতল। কর্মীদের হুমকি দিতেও দেখা যায়।  বারের মালিক রাহুল প্রামানিকের অভিযোগ অনেক সময় ধরে তাঁরা লুটপাট করে, মদও খায়। পরে বেরিয়ে গিয়ে তিন বার গুলি ছোঁড়ে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। খতিয়ে দেখা হচ্ছে সিসিটিভি ফুটেজ। স্থানীয় সূত্রে খবর এই ঘটনার পিছনে ভিন রাজ্যের দুষ্কৃতীদের হাত রয়েছে।

কাছেই বিহার বর্ডার। আশঙ্কা করা হচ্ছে সেখান থেকেই রাতের অন্ধকারে দুষ্কৃতীরা হরিশ্চন্দ্রপুরে এসে লুটপাট চালিয়ে আবার বিহারে চলে গিয়েছে।থানা থেকে ঢিলছোড়া দূরত্বে এই ভয়াবহ ডাকাতির ঘটনা ঘটায় ক্ষুদ্ব ব্যবসায়ী মহল। হরিশ্চন্দ্রপুর মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশন। তারা অবিলম্বে এই বিষয়ে হরিশ্চন্দ্রপুর পুলিশ প্রশাসনের পদক্ষেপ দাবি করেছেন।প্রশাসন ব্যবস্থা না নিলে বড়োসড়ো আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন ব্যবসায়ী সমিতির।