শীতকালে শরীর সুস্থ সবল রাখতে গুড়ের ভূমিকা জেনে নিন

শীতকালে শরীর সুস্থ সবল রাখতে গুড়ের ভূমিকা জেনে নিন

আজবাংলা   শীতকালে গুড় খাওয়া শরীরের জন্য বিশেষ উপকারী। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পুষ্টিগুণের দিক দিয়ে চিনির চেয়ে গুড় বেশি উপকারী। আখ বা খেজুরের রস থেকে তৈরি করা মিষ্টি হল গুড়। তবে অনেক দেশে পামের রস থেকেও গুড় তৈরি করা হয়। রস সংগ্রহ করার পরে তা বড় পাত্রে সংরক্ষণ করা হয় এবং তা কিছুক্ষণ স্থির ভাবে রেখে দিয়ে জ্বাল দেওয়া হয়।

শীতকালে গুড় খাওয়া শরীরের জন্য ভালো। এতে শরীর সুস্থ থাকে ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। এতে শরীরের জন্য উপকারী প্রচুর পরিমাণে খনিজ, আয়রন, ম্যাগনেশিয়াম, পটাশিয়াম, ক্যালশিয়াম, সেলেনিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ ও জিঙ্ক পাওয়া যায়। আয়ুর্বেদের মতে, গুড় নানারকম পেটের অসুখ সারাতেও ভূমিকা রাখে।

গুড় শরীরে তাপ উৎপাদন করে এবং শরীরের তাপমাত্রা ঠিক রাখতে সাহায্য করে। এতে আছে উচ্চ মানের ক্যালোরিফিক, যা শরীর উষ্ণ রাখে এবং শক্তি যোগায়। গুড় রক্ত পরিষ্কার করে, হিমোগ্লোবিনের মাত্রা বাড়ায়, আর শরীরের অবাঞ্ছিত উপাদান দূর করে।

গুড় নানা রকম অসুখ যেমন- সর্দি-কাশি ও সাধারণ ঠাণ্ডার কারণে শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়া নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং ক্ষতিকর অনুজীব বৃদ্ধি হ্রাস করতে সাহায্য করে। শীতের সময় কফ, গলাব্যথা, গলা ফোলা বা খুসখুসে কাশি হলে গুড় খেলে উপকার পাবেন।

এ ছাড়া শ্বাসযন্ত্রের সমস্যা যেমন- কফ, বুকে কফ জমাট বাঁধা, রক্ত প্রবাহে সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। শীতের শুষ্ক ঠাণ্ডা বাতাসের কারণে জীবাণু ছড়িয়ে পড়ে, শরীর রোগাক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে। এ কারণে এ সময় নিয়মিত গুড় খেলে পাকস্থলী, অন্ত্র, ফুসফুস এবং খাদ্যনালি সুস্থ রাখতে সহায়তা করে।