মরুভূমির বুকে প্রথম মাধ্যাকর্ষণহীন শহর গড়ছে সৌদি আরব

মরুভূমির বুকে প্রথম মাধ্যাকর্ষণহীন শহর গড়ছে সৌদি আরব

এ যেন কল্পবিজ্ঞানের পাতা থেকে উঠে আসা এক শহর! ১৭০ কিলোমিটার দীর্ঘ দুটি সমান্তরাল অট্টালিকা। আর তাতেই থাকবেন ৯০ লক্ষ মানুষ। এমনই একটি শহর তাঁরা নির্মাণ করতে চলেছেন বলে দাবি সৌদি আরবের।

তাদের দাবি, এই শহরটি ‘পৃথিবীর প্রথম মাধ্যাকর্ষণহীন শহর’ হবে, ‘থাকবে না কোনও দূষণ, চলবে না কোনও গাড়িও’।  শহরটির নাম হতে চলেছে ‘এনআইওএম’ বা ‘নিয়ম’। সৌদি যুবরাজ মহম্মদ বিন সলমন হতে চলছেন এই শহরের বোর্ড অব ডাইরেক্টর্স-এর প্রধান।

সরলরৈখিক এই শহরটিকে অনেকে ‘দ্য লাইন’ বলেও উল্লেখ করছেন। জলবায়ু বদল ও বর্তমান নগরজীবনের সমস্যা মোকাবিলাতে এই শহর যুগান্তকারী হতে চলেছে বলেও দাবি করেন সলমন।  জেড্ডাতে এই শহর নিয়ে কথা বলার সময় সলমন জানান, সমান্তরাল অট্টালিকা দুটির উচ্চতা হতে চলেছে ১৬০০ ফুট। দুই অট্টালিকাই হতে চলেছে সরলরৈখিক।

লোহিত সাগর থেকে শুরু হয়ে মরুভূমির মধ্যে দিয়ে বিস্তৃত হবে এই শহর। কোনও ধরনের জীবাশ্ম জ্বালানির ব্যবহার হবে না। স্বয়ংসম্পূর্ণ হবে শহরটি। দুই অট্টালিকার ভিতরেই থাকবে চাষাবাদের স্থানও। শহরের এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে যেতে সময় লাগবে মাত্র ২০ মিনিট। সলমনের দাবি, ২০৩০ সালের মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে শহর নির্মাণের কাজ।