হযরত মোহাম্মদের পর শার্লি হেবদোয় এরদোয়ানের ব্যঙ্গচিত্র, নিন্দায় তুরস্ক

হযরত মোহাম্মদের পর  শার্লি হেবদোয় এরদোয়ানের ব্যঙ্গচিত্র, নিন্দায়  তুরস্ক

আজবাংলা    ফ্রান্সের ম্যাগাজিন শার্লি হেবদোয় এবার তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেফ তাইয়্যেপ এরদোয়ানের ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করা হয়েছে। ম্যাগাজিনটির মঙ্গলাবারের সর্বশেষ সংখ্যার প্রচ্ছদ পাতায় এরদোয়ানের ব্যঙ্গচিত্র হাজির করা হয়েছে। ম্যাগাজিনটির প্রচ্ছদ কার্টুনই এরদোয়ানকে নিয়ে। 

এর আগে  হযরত মোহাম্মদের কার্টুন প্রকাশ করে শার্লি হেবদো পত্রিকাই বিতর্কের ঝড় তুলেছিল।  শার্লি হেবদোর অফিস আক্রমণ করে প্রচুর কর্মীকে হত্যা করেছিল  ইসলামিক জঙ্গিরা । সেই কার্টুন দেখিয়ে মত প্রকাশের স্বাধীনতা ব্যাখ্যা করতে গিয়ে শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটি হত্যা করে  ইসলামিক জঙ্গিরা ।  

তাঁকেও হত্যা করে ১৯ বছর বয়সী চেচেন যুবক। এরপর ফরাসি প্রেসিডেন্ট মাক্রোঁ জানিয়েছিলেন তিনি মত প্রকাশের স্বাধীনতার পক্ষে। এই অবস্থান থেকে পিছিয়ে আসার কোনো সম্ভাবনা নেই। এরদোয়ানের মত ছিল, মাক্রোঁ ইসলামকে অপমান করতে পারেন না।

মাক্রোঁকে ফ্যাসিস্ট আখ্যা দিয়ে এরদোয়ান বলেছিলেন, কেউ যেন ফরাসি জিনিস না কেনেন। তারপর আরব দুনিয়ার অনেক দেশই ফরাসি জিনিস বয়কট করেছে। এই ঘটনার পর  শার্লি হেবদো  এবার কার্টুন প্রকাশ করেছে এরদোয়ানের।

মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) শার্লি হেবদোর সবশেষ সংখ্যা অনলাইনে প্রকাশ করা হয়। এর প্রচ্ছদে প্রকাশিত ছবিতে দেখা যায়, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান একটি সাদা টি-শার্ট এবং অন্তর্বাস পরে বসে আছেন। পাশে হিজাব পরিহিত এক নারী মদের পসরা সাজিয়ে অর্ধ-নগ্ন অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছেন।

ফ্রান্সের বিতর্কিত ব্যঙ্গাত্মক সাপ্তাহিক ম্যাগাজিন শার্লি হেবদো কর্তৃক তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেফ তাইয়্যেপ এরদোয়ানের ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে তুরস্ক।  আঙ্কারা বলছে, এটি সাংস্কৃতিক বর্ণবাদ এবং বিদ্বেষ ছড়ানোর ঘৃণ্য প্রচেষ্টা।

তুর্কি প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র ইব্রাহিম কালিন টুইটারে বলেছেন, ‘ফরাসি ম্যাগাজিনে আমাদের প্রেসিডেন্টকে জড়িয়ে যে চিত্র প্রকাশ করা হয়েছে; সেখানে কোনো বিশ্বাস, পবিত্রতা এবং মূল্যবোধের প্রতি শ্রদ্ধা নেই, আমরা দৃঢ়ভাবে এর নিন্দা জানাই।’ তিনি বলেছেন, তারা কেবল নিজেদের অশ্লীলতা এবং অনৈতিকতার প্রদর্শন করছে। কারও ব্যক্তিগত অধিকারের ওপর আক্রমণ হাস্যরস কিংবা মত প্রকাশের স্বাধীনতা হতে পারে না।