বায়ুদূষণের জেরে শ্বাসকষ্ট, হাঁপানি? মুক্তি পেতে তালিকায় রাখুন এই খাবারগুলি

বায়ুদূষণের জেরে শ্বাসকষ্ট, হাঁপানি? মুক্তি পেতে তালিকায় রাখুন এই খাবারগুলি

আজ বাংলা:  লকডাউন-করোনা... এই দুইয়ের জেরে সাধারণ মানুষের জীবনের স্বাভাবিক ছন্দ থমকে গিয়েছিল। যদিও যানবাহন না চলায় এক ঝটকায় অনেকটা কমেছিল দূষণ। 


হ্যাঁ, এমনকী দিল্লির মতো অত্যন্ত দূষিত এলাকাতেও উল্লেখযোগ্যভাবে নেমে যায় বায়ুদূষণের মাত্রা। কিন্তু নিউ নর্মালে ফের দেখা যাচ্ছে সেই পুরনো ছবি। দিল্লি, মুম্বই, কলকাতা-সহ দেশের বিভিন্ন শহরেই নতুন করে বাড়ছে দূষণ।

আর এই বায়ুদূষণ শ্বাসকষ্ট, হাঁপানির পাশাপাশি কিন্তু কোভিড আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও বাড়িয়ে তুলছে। এমন সময় প্রয়োজন শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো। 

এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দূষণের সঙ্গে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট জাতীয় খাবার খান। নিয়মিত মেনুতে রাখুন এই পাঁচটি খাবার। তাহলে জেনে নিন কী কী খাবেন।

গুড়: গুড় বিষাক্ত ব্যাকটিরিয়া থেকে শরীরকে দূরে রাখতে বিশেষ উপকারী। ফলে খাবারের শেষে এক চামচ গুড় খেতে নিন। মিষ্টিমুখ করাও হবে, সুস্থও থাকবেন। এছাড়া সকালে উঠে ঈষদুষ্ণ জলের সঙ্গে গুলেও গুড় খেতে পারেন।


আমলকি: হ্যাঁ, আমলকিতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ও ভিটামিন সি রয়েছে। যা প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে। এছাড়া এর নানা পুষ্টিগুণ সর্দি-কাশি-সহ বিভিন্ন রোগ থেকে শরীরকে সুরক্ষিত রাখতে সাহায্য করে।

বাদাম ও খেজুর: এই ধরনের শুকনো খাবারে অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের পাশাপাশি ভিটামিন এ, বি, সি, ই রয়েছে প্রচুর পরিমাণ। এতেও বাড়বে আপনার রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা।

কাঁচা হলুদ: ঠান্ডা লাগলে বাড়ির বড় কাঁচা হলুদ দিয়ে দুধ খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কারণ তা শরীরে শক্তি জোগায়। ঠিক একইভাবে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকায় এটি দূষণের বিরুদ্ধে লড়াইয়েও সাহায্য করে।

ব্রকলি ও টমেটো: রোজ না হলেও সপ্তাহে একাধিক দিন মেনুতে রাখুন এই দুটি জিনিস। ব্রকলি যেমন ব্যাকটিকিয়া মারে তেমন টমেটোয় ভিটামিন সি থাকায় দূষণ থেকে লড়তে শরীরকে সাহায্য করে।

যদিও খাবারের পাশাপাশি নিয়মিত ভ্যাপার নেওয়া কিংবা ঈষদুষ্ণ জলে গার্গল করাও অত্যন্ত আবশ্যক। এতে বুকে জমে থাকা সর্দি বেরিয়ে আসে। একইসঙ্গে হয়ে ওঠে করোনা ভাইরাসের যম।