সুদীপ্ত সেনকে সিবিআই ডিরেক্টরকে চিঠি দিলেন শুভেন্দু অধিকারী

সুদীপ্ত সেনকে সিবিআই ডিরেক্টরকে চিঠি দিলেন  শুভেন্দু অধিকারী

সিবিআই ডিরেক্টরকে চিঠি লিখলেন শুভেন্দু অধিকারী। সারদা কর্তা সুদীপ্ত সেন গত ১ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রীকে যে চিঠি লিখেছিলেন বলে দাবি করা হচ্ছে, তারই পরিপ্রেক্ষিতে সিবিআই শীর্ষ কর্তাকে চিঠি দিয়েছেন শুভেন্দু।

চিঠির কপি পাঠানো হয়েছে সিবিআই-এর কলকাতা অফিসের জয়েন্ট ডিরেক্টরকে। সুদীপ্ত সেন জেল থেকে যে চিঠি লিখেছিলেন বলে দাবি করা হচ্ছে, তাতে বেশ কয়েকজন রাজনীতিবিদের বিরুদ্ধে বিপুল টাকা নেওয়ার অভিযোগ তুলেছিলেন সারদা কর্তা।

সেই তালিকায় ছিল শুভেন্দু অধিকারীর নাম। চিঠিতে দাবি করা হয়েছিল, শুভেন্দু সারদা চিট ফান্ড চালু থাকাকালীন সারদা কর্তার থেকে শুভেন্দু অধিকারী বিপুল টাকা নিয়েছিলেন। এই চিঠির উদ্দেশ্য নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেই সিবিআই-কে চিঠি লিখেছেন শুভেন্দু অধিকারী।

তাঁর অভিযোগ, গত ২৭ নভেম্বর তিনি রাজ্য মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগের পর পরই ১ ডিসেম্বর যেভাবে জেল থেকে সুদীপ্ত সেন তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ করে এই চিঠি লিখেছেন, তার পিছনে তাঁকে বদনাম করার উদ্দেশ্য থাকতে পারে।

এত বছর পরে কেন সুদীপ্ত এই চিঠি লিখলেন, কেনই বা জেলের ভিতর থেকে প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীকে লেখা চিঠি এ ভাবে সংবাদমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ল, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন শুভেন্দু। সুদীপ্ত সেন চিঠিতে লিখেছেন, যে রাজনৈতিক নেতাদের নাম তিনি নিচ্ছেন তাঁদের মধ্যে একজন বিজেপি-তে যোগ দিতে পারেন।

সারদা কর্তার চিঠিতে উল্লেখ করা এই অংশের কথাও সিবিআই-এর নজরে এনেছেন শুভেন্দু। চিঠিতে শুভেন্দু অধিকারী আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন, জেল কর্তৃপক্ষ এবং প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বদের চাপেই এই চিঠি সুদীপ্ত সেন লিখে থাকতে পারেন।

যেহেতু সিবিআই সারদা মামলার তদন্ত করছে, তাই এই চিঠি কোন পরিস্থিতে লেখা হল, বা এই চিঠি লেখার পিছনে কোনও প্রভাবশালী মহলের চাপ কাজ করেছে কি না, তাও খতিয়ে দেখার জন্য সিবিআই-কে অনুরোধ করেছেন শুভেন্দু অধিকারী।