বড়দিনের আগে লক্ষীবারেও বিপুল কমল সোনা ও রুপোর দাম

বড়দিনের আগে লক্ষীবারেও বিপুল কমল সোনা ও রুপোর দাম

আজ বাংলা: লক্ষ্মীবারেও বিপুল কমল সোনার দাম। ৪৮,০০০ টাকার গণ্ডি থেকে সোনা চাঙ্গা হলেও তা অগস্টের রেকর্ড দামের থেকে অনেকটাই কম। আর সেই মাসেই এক কেজি রুপোর দর প্রায় ৮০,০০০ টাকার গণ্ডি ছুঁয়ে ফেলেছিল।

জানা গিয়েছে, বুধবার বাজার বন্ধের সময় এমসিএক্স সূচকে ১০ গ্রাম সোনার দাম ছিল ৫০,১৪৯ টাকা। এক কেজি রুপোর দর ছিল ৬৭,৫৭৬ টাকা।

বিশ্ব বাজারে অবশ্য সোনার দামে তেমন হেরফের হয়নি। আমেরিকার অর্থনীতির গ্রাফ যে সামান্য উঠেছিল, তা কর্মহীনতার বৃদ্ধির দাবির ফলে আবারও ধাক্কা খেয়েছে।

দেশের বিভিন্ন শহরে সোনার দাম বিভিন্ন। এর মূল কারণ রাজ্যে রাজ্যে করের বহরে আকাশ-পাতাল পার্থক্য। তুলনামূলকভাবে দক্ষিণ ভারতে সোনার দাম কম।

জানা গিয়েছে, কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকার প্রতিদিনের সোনার বাজার দর কী হবে তা মূলত স্থির করে ওয়েস্ট বেঙ্গল বুলিয়ান মারচেন্টস্ অ্যান্ড জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (WBBMJA)। 

শহর ও শহরতলির অধিকাংশ গয়নার দোকান তাদের দেওয়া দরের উপরে ভিত্তি করে মূল্য নির্ধারণ করে। বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক বাজারে স্পট গোল্ডের দাম নিস্তরঙ্গ। যার প্রভাব দেখা গিয়েছে ভারতে।

 

ঘরোয়া বাজারে এদিন সকালের বেচাকেনায় বিশেষ একটা ঝুঁকি নিতে চাননি ভারতের লগ্নিকারীরা। যার ফলে নিম্নমুখী এই ধাতুর দাম। বড়দিনের ছুটির আগে সোনার দামে ওঠানামা জারি থাকবে বলে অভিমত বাজার বিশেষজ্ঞদের।