শেভিংয়ের সময় গালে জ্বালা করে? রইল সমাধান

শেভিংয়ের সময় গালে জ্বালা করে? রইল সমাধান

আজবাংলা    শেভিংয়ের সঙ্গে আমরা সকলেই পরিচিত। দাড়ি-গোঁফ শেভিংয়ে আরামের বিষয়টা জরুরি। কারণ, হাজার হলেও মুখ বলে কথা। রেজার দিয়ে শেভিংয়ের সময় জ্বালাপোড়া যন্ত্রণার বিষয়। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে বিশেষজ্ঞদের টিপস রইল।

১. রেজার পরিবর্তন করুন-  সময়ে সময়ে রেজার পরিবর্তন করা উচিত। পুরাতন রেজারগুলোর ব্যবহারে র‍্যাশ হতে পারে। কেটে যাওয়ার সম্ভাবনাও থাকে। এমনটি হলে পুরানোটিকে ফেলে দিন। নতুন একটি ব্যবহার করুন।

২. গরম জল-  দাড়ি এবং ত্বক নরম হলে শেভিং বেশ সহজ হয়ে যায়। শেভ করার আগে সম্ভব হলে মুখে গরম বাষ্পের ভাপ নিন। এতে দাড়ি নরম হয়ে যাবে। এছাড়া গরম জলও ব্যবহার করতে পারেন। উষ্ণ গরম জল ত্বক এবং দাড়ি নরম করতে সহায়তা করে এর ফলে রেজার থেকে হওয়া জ্বালাপোড়ার ঝুঁকি হ্রাস পায়।

৩. রেজার পরিষ্কার রাখা- শেভ করার আগে নিশ্চিত হওয়া যে রেজারটি পরিষ্কার আছে। প্রতিবার গালে স্ট্রোকের পরে রেজারে যে ফোম এবং দাড়ি লেগে যায় তা পরিষ্কার করে নিন। ব্লেডে আটকে থাকা চুলসহ শেভ করলে জ্বালাপোড়া হতে পারে।

৪. শেভিং ফোম বা জেল-  শুষ্ক ত্বকে শেভ করা চরম বিরক্তিকর ও ক্ষতিকর হতে পারে। কারণ এটি সংক্রমণ এবং জ্বালাপোড়ার ঝুঁকি বাড়ায়। শেভ করার আগে ল্যাটারিং আপ করা একটি প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ। এর জন্য একটি ভালো শেভিং ফোম বা জেল ব্যবহার করুন। এটি আপনার মুখে ম্যাসেজ করুন প্রায় ১-২ মিনিট ধরে।

৫. চাপ দিয়ে শেভ- চাপ দিয়ে শেভ করলে জ্বালাপোড়ার পোড়ার ঝুঁকি বাড়তে পারে। শেভ করার সময় যতটা সম্ভব কম চাপ দেবেন।