বিধানসভা নির্বাচনে ভোটারদের কথা মাথায় রেখে কমিশনের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত

বিধানসভা  নির্বাচনে ভোটারদের কথা মাথায় রেখে কমিশনের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত

করোনা আবহে হবে এবারের বিধানসভা নির্বাচন। তবে শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয়, ভোট হবে মোট পাঁচ রাজ্যে। পশ্চিমবঙ্গ ছাড়াও অসম, কেরল, তামিলনাড়ু এবং কেন্দ্রশাসিত রাজ্য পুদুচেরিতে বিধানসভা ভোট হবে। শুক্রবার বিকেল সাড়ে চারটেয় ভোটের নির্ঘন্ট ঘোষণা করল জাতীয় নির্বাচন কমিশন। তবে করোনার জেরে বেশ কয়েকটি বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক নির্বাচন কমিশনের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত। বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারের সময় প্রার্থী সহ পাঁচজন থাকতে পারবেন। রোড শো বা মিছিল করা যাবে। তবে এক্ষেত্রে পাঁচটি গাড়ি রাখা যাবে। এবং গাড়ির মধ্যে অনেকটা ফাঁকা জায়গা রাখতে হবে। অনলাইনে জমা দেওয়া যাবে মনোনয়ন।

যদি কেউ নিজে মনোনয়ন জমা দিতে চান সেক্ষেত্রে প্রার্থীর সঙ্গে মাত্র দু'জন থাকতে পারেবেন। মাত্র দুটি গাড়ি নিয়ে যেতে পারবেন প্রার্থী। করোনা সংক্রমণ এবং বয়স্ক ভোটারদের কথা মাথায় রেখে সমস্ত বুথই নিচের তলায় (Ground Floor) করা হবে। করোনা আবহের কথা মাথায় রেখে বিহার মডেলে ভোটের সময় একঘন্টা বাড়ানো হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গে একজন সাধারণ পর্যবেক্ষক এবং দু'জন পুলিশ পর্যবেক্ষক পাঠাবে কমিশন। পর্যবেক্ষকদের জন্য বিএসএফ-এর হেলিকপ্টার মোতায়েন থাকবে। যাতে তাঁরা দ্রুত অন্য এলাকায় যেতে পারেন। প্রতিটি স্পর্ষকাতর বুথেই থাকবে কেন্দ্রীয় বাহিনী। স্পর্ষকাতর বুথের জন্য একটি কমিটি গড়া হবে। এছাড়া প্রত্যেক স্পর্ষকাতর বুথে ওয়েবকাষ্টিং হবে।

৮০ ও তার বেশি বয়স্ক, বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তি, জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিরা পোস্টাল ব্যালটে ভোট দেওয়ার সুযোগ পাবেন। করোনাভাইরাস আক্রান্ত, সন্দেহভাজন করোনা আক্রান্ত এবং নিভৃতবাসে থাকা মানুষের জন্য পৃথক নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ৩১ শতাংশ বাড়ানো হচ্ছে বাংলার বুথ। মোট বুথ হবে এক লাখের বেশি। রাজ্য ও জেলা স্তরে নিয়োগ করা হবে নোডাল অফিসার।