কসবা ভুয়ো টিকাকাণ্ডে হর্ষ বর্ধনকে চিঠি শুভেন্দুর, তদন্ত করুক কেন্দ্রীয় সংস্থা

কসবা ভুয়ো টিকাকাণ্ডে হর্ষ বর্ধনকে চিঠি শুভেন্দুর, তদন্ত করুক কেন্দ্রীয় সংস্থা

কসবা ভুয়ো টিকাকাণ্ডে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডঃ হর্ষ বর্ধনকে চিঠি লিখলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। কেন্দ্রীয় সংস্থাকে দিয়ে এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত চেয়ে এই চিঠি লিখলেন শুভেন্দু অধিকারী। এর আগে শুক্রবার অভিযুক্ত দেবাঞ্জনের সঙ্গে রাজ্য়ের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের ঘনিষ্ঠতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন শুভেন্দু। তাঁর অভিযোগ, এই ঘটনা একটা বড়সড় চক্রান্ত।

শুভেন্দু অধিকারীর যুক্তি, অসংখ্য মানুষ কসবার ওই টিকাকরণ কেন্দ্র থেকে করোনার টিকা নিয়েছেন। আগামী দিনে এই ঘটনার জন্য তাঁদের যদি কোনও ক্ষতি হয়, তবে তার দায় কে নেবে? শুভেন্দুর অভিযোগ, এই ঘটনার জেরে বড় কোনও অঘটন ঘটলে রাজ্য সরকার কেন্দ্রকেই দায়ী করত। তাই এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হওয়া দরকার। দেবাঞ্জন ছাড়া আর কারা রয়েছেন এর পিছনে, তা প্রকাশ্যে আসা দরকার।

 শুক্রবার সল্টলেকের স্বাস্থ্য ভবনে হাজির হয়েছিলেন শুভেন্দু এবং বিজেপির বেশ কয়েকজন বিধায়ক। ছিলেন বিজেপি সাংসদ ডঃ সুভাষ সরকার। সেখানে শুভেন্দু অভিযোগ করেন, দিনের পর দিন শাসক দলের ঘনিষ্ঠ হওয়ার সুবাদেই তৃণমূল নেতৃত্বের কাছাকাছি আসতে পেরেছিলেন দেবাঞ্জন। আর সেই কারণেই তৃণমূলের একাধিক নেতার সঙ্গে তাঁকে দেখা গিয়েছে। এই ঘটনা একটা বড়সড় চক্রান্ত।

শুভেন্দুর মতে, কসবা টিকা কেলেঙ্কারির প্রকৃত সত্য সামনে আনতে প্রয়োজনে স্বতন্ত্র কোনও সংস্থাকে দিয়ে তদন্ত করাতে হবে। এদিকে ইতিমধ্যেই কসবা ভুয়ো ভ্যাকসিন-কাণ্ডে সিবিআই তদন্ত চেয়ে কলকাতা হাইকোর্টে দায়ের হয়েছে জনস্বার্থ মামলা। সন্দীপন দাস নামে কলকাতা হাইকোর্টের এক আইনজীবী মামলাটি দায়ের করেছেন। মামলাকারী আদালতে জানিয়েছেন, এই ঘটনা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে, রাজ্যে ভ্যাকসিন দেওয়া নিয়ে চূড়ান্ত অনিয়ম চলছে। তাঁর দাবি, এই ঘটনার যথাযথ তদন্তের জন্য সিবিআইকে দায়িত্ব দেওয়া হোক।