সূর্যের উপাসনা সরকারি চাকরি পেতে সহায়ক, বলছেন জ্যোতিষীরা

সূর্যের উপাসনা সরকারি চাকরি পেতে সহায়ক, বলছেন জ্যোতিষীরা

কখন আপনার চাকরি হবে, এটা জানা কোটি টাকার প্রশ্ন। আপনার চাকরি পাওয়ার সঙ্গে শিক্ষাগত যোগ্যতার সম্পর্ক থাকতেও পারে, আবার না থাকতেও পারে। জ্যোতিষ মতে চাকরি পেতে হলে প্রথমেই জানতে হবে আপনার জন্মছকটি চাকরির ছক না ব্যবসার ছক। অথবা চাকরি এবং ব্যবসা দুটোই আপনার জন্মছকে আছে কি না। যে কোন জ্যোতিষের কাছে গিয়ে এটা পরিষ্কার করে নিতে হবে।

ধর্মীয় শাস্ত্র অনুযায়ী সূর্যদেবের পুজো করলে অক্ষয় ফল পাওয়া যায়। এর ফলে সুখ-সমৃদ্ধি, মান-সম্মান, পদ-প্রতিষ্ঠা, সরকারি চাকরি এবং উন্নত স্বাস্থ্যের অধিকারী হন উপাসক। যাঁরা সরকারি চাকরি পেতে চান, তাঁদের অবশ্যই সূর্যের উপাসনা করা উচিত। রবিবারের দিন সূর্যকে সমর্পিত।

এ দিনেই সূর্যের উপাসনা করা উচিত। এখানে জানুন, সূর্যের আশীর্বাদ পাওয়ার জন্য কী কী কাজ করা উচিত। ধন, বৈভব, যশের কামনা করে থাকলে রবিবারের দিন প্রত্যক্ষ দেবতা সূর্যের সাধনা করতে ভুলবেন না। এদিন, বিধি অনুযায়ী পুজো ও উপোস করলে সমস্ত বাধা দূর হয় ও সরকারি চাকরি ও ব্যবসায় সাফল্য হাতে আসে।

রবিবার স্নান করে সূর্যকে জলের অর্ঘ্য দেওয়া উচিত। শুধু রবিবারই নয়, রোজ এই অর্ঘ্য দেওয়া উচিত। ধর্মীয় ধ্যান-ধারণা অনুযায়ী, নিয়মিত জলের অর্ঘ্য দিলে সূর্য খুশি হন। সূর্য উপাসনায় মন্ত্র জপ করলে মনোকামনা শীঘ্র পুরো হয়। সুখ-সমৃদ্ধি, উন্নত স্বাস্থ্য ও সরকারি চাকরির জন্য সূর্যের মন্ত্র উপযোগী।

এই মন্ত্রটি হল— এহি সূর্য সহস্ত্রাংশো তেজোরাশো জগত্পতে। অনুকম্পয় মাঁ ভক্ত্যা গৃহণাধ্য্র দিবাকর।। ওম ঘৃণি সূর্যায় নমঃ।। ওম এহি সূর্য সহস্ত্রাংশো তেজোরাশো জগত্পতেয় অনুকম্পয়েমাং ভক্ত্যায় গৃহাণার্ধয় দিবাকররু।।

ওম হৃীং ঘৃণিঃ সূর্য আদিত্যঃ ক্লীং ওম।। সূর্যকে প্রসন্ন করার জন্য রবিবার গুড় দান করা উচিত। এদিন দান করার বিশেষ গুরুত্ব রয়েছে। ব্যক্তি নিজের ইচ্ছানুযায়ী দান করতে পারেন। কমলা সূর্যের রং। রবিবারের দিন তাই এই রঙের কাপড় পড়া উচিত।