বিশ্বের অবাক করা বৃষ্টিহীন গ্রাম

বিশ্বের অবাক করা বৃষ্টিহীন গ্রাম

 

 

বৃষ্টি প্রকৃতির এক অনন্য দান। বৃষ্টি হয় বলেই আমাদের পৃথিবী সুজলা-সুফলা। বালুময় মরুভূমি থেকে সবুজ সমতল কিংবা পাহাড়ি এলাকা-পৃথিবীর সব অঞ্চলে কম বেশি বৃষ্টিপাত হয়। বিশ্বে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত কোথায় হয়, এর উত্তর প্রায় সকল মানুষেরই জানা।  তবে পৃথিবীতে এমন একটি গ্রাম আছে যেখানে কখনও বৃষ্টি পড়ে না।জেনে নেওয়া যাক কোথায় অবস্থিত সেই গ্ৰাম—

আল হুতাইব পৃথিবীর একমাত্র গ্ৰাম যেখানে বৃষ্টি হয় না।গ্ৰামটা কী মরুভূমি অঞ্চলে অবস্থিত? না, ইয়েমেনের রাজধানী সানার প্রশাসনিক এলাকা জাবল হারজের পার্বত্যাঞ্চলের এই গ্ৰাম অবস্থিত। সমৃদ্ধ এই গ্ৰামে সবকিছুই রয়েছে। কিন্তু এই গ্ৰামে কখনো বৃষ্টি ঝরে পড়েনি।শুষ্ক মরুভূমির মধ্যেও কখনো না কখনো বৃষ্টির ছোঁয়া লেগেছে। তাহলে এই অঞ্চলের বৃষ্টি না হওয়ার কারণ কী? বৃষ্টি হতে গেলে আগে মেঘের উপস্থিতি দরকার।

মেঘ সাধারণ সমতল থেকে ২০০০ মিটার উচ্চতায় ঘনীভূত হয়। কিন্তু এই গ্ৰাম সমতল থেকে ৩২০০ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত।তাই ওই স্থানের আকাশে কখনো মেঘের আনাগোনা দেখা যায় না, বৃষ্টিও পড়ে না।তবে পর্যটকদের জন্য বেশ আকর্ষণীয় স্থান এটি।প্রকৃতির দান বৃষ্টিপাত থেকে আল হুতাইব নামক এই গ্ৰামটি  বঞ্চিত। এই গ্ৰামটি বেশ সমৃদ্ধ। জনবসতিও গড়ে উঠেছে এই গ্ৰামে। স্কুল, মসজিদ এর সাথে সাথে ষোড়শ শতকের একটি স্থাপত্যও আছে। গ্ৰামটিকে দেখে মনে হবে অন্যান্য স্বাভাবিক গ্ৰামের মতই।

এই গ্রামের সঙ্গে মুম্বইয়ের একটা নিবিড় যোগ রয়েছে। মহম্মদ বুরহানউদ্দিন এই গ্রামে ধর্মপ্রচারক হিসেবে কাজ করেছেন। ব্রিটিশ আমলে বম্বে প্রেসিডেন্সির সুরাতে জন্ম বুরহানউদ্দিনের। ২০১৪ সালে মুম্বইয়ে তাঁর মৃত্যু হয়। কিন্তু তাঁর আগে প্রতি তিন বছর অন্তর এই গ্রামে গিয়ে দেখভাল করে আসতেন তিনি।

এই গ্ৰামের অন্য গ্ৰামের সাথে একটাই পার্থক্য অন্য গ্রামগুলো যখন বছরের কোনো না কোনও সময় বৃষ্টিতে ভিজে সিক্ত হয় সেখানে আল হুতাইব থাকে শুকনো খটখটে। মরভূমিতেও বছরের কোনো না কোনো সময় অল্প পরিমাণে হলেও বৃষ্টিপাত ঘটায়। দিনের বেলায় প্রচণ্ড গরম। রাতের দিকে হিমশীতল ঠান্ডা নেমে আসে গ্রামে।  সূর্য উঠতেই আবহাওয়া উত্তপ্ত হয়ে ওঠে।আল হুতাইব গ্ৰামটির বৃষ্টি না হওয়ার একমাত্র কারণ হল এই স্থানের উচ্চতা। ভূপৃষ্ঠ থেকে গ্ৰামটি ৩২০০ মিটার উচুঁতে অবস্থিত হওয়ায় এখানকার আবহাওয়া রুক্ষ প্রকৃতির। গ্রামটি যে উচ্চতায় অবস্থিত এখানে সেই উচ্চতায় মেঘ জমে না।

মেঘ তার নীচের স্তরে জমে। ফলে মেঘ সৃষ্টি হলেও এই গ্রামে বৃষ্টি হয় না। এটাই এই গ্ৰামের এর বিশেষ বৈশিষ্ট্য। আমাদের দেশে বছরভর চাষিরা অপেক্ষা করে থাকে মৌসুমী বায়ুর বৃষ্টিপাতের জন্য। কিন্তু পশ্চিম-মধ্য এশিয়ার ইয়েমেনের এই গ্রামে দশকের পর দশক বৃষ্টি ছাড়াই কাটিয়ে যাচ্ছেন গ্রামবাসীরা। পাহাড়ের  পাথর কেটে কেটে বাড়ি তৈরি করেছে এখানকার মানুষরা। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এই স্থানের মনোরম। প্রাচীনের সঙ্গে আধুনিকতার মিশ্রণ এই গ্রামটির সৌন্দর্য আরও বাড়িয়ে তুলেছে।বহু পর্যটক অবাক করা এই বৃষ্টিহীন এই গ্ৰাম দেখার জন্য উদ্বিগ্ন হয়ে ছুটে আসে।