লাউয়ের ৪টি অজানা গুণ দেখে নিন -

লাউয়ের ৪টি অজানা গুণ দেখে নিন -

আজ বাংলা: আমরা সকলেই লাউ এর সাথে পরিচিত। সবজি টি বাজারে গেলে দেখাই যায়। এর প্রচুর উপকারিতা রয়েছে। একটা সবজির যে এত গুন থাকতে পারে তা অনেকেরই অজানা। লাউ সবজি আমাদের এখানে খুবই প্রচলিত এবং আমরা অনেকেই বিভিন্ন পদের রান্না করে লাউকে খেয়ে থাকি। লাউ আমাদের এখানে প্রচুর পরিমাণে প্রচলিত থাকলেও লাউ বিশেষত আফ্রিকা দেশের সবজি।

গ্রাম বাংলার মানুষেরা লাউ সবজিকে নানাভাবে নানা পদের রান্না করে থাকে। লাউয়ের তরকারি থেকে শুরু করে লাউয়ের পাতা অব্দি রান্না করে খেয়ে থাকে গ্রাম বাংলার লোকেরা। এছাড়াও বাংলার মানুষেরা লাউ চাষ করে থাকে নিজেদের বাড়িতে কারণ লাউ চাষ করতে বেশি ঝুট ঝামেলা নেই। তাই আমরা লাউ খেয়ে থাকি কিন্তু আমরা হয়তো অনেকেই জানিনা লাউতে প্রচুর পুষ্টিগুণ রয়েছে।

অনেকের হয়ত অজানা লাউ বিশেষত দুই ধরনের হয়ে থাকে। একটি ধরন হল বারি লাউ এবং আরেকটি ধরন হলো হাইব্রিড লাউ। তারমধ্যে বারি লাউ সারা বছরই চাষ করা হয়ে থাকে। বারি লাউ পুরুষ ও স্ত্রী সবধরনের বীজ রোপন করা হয়। এই প্রজাতির লাউ হালকা সবুজ রঙের হয়, ফুল থেকে সবজি হতে সময় লাগে ৬০-৬৫ দিন। অন্যদিকে হাইব্রিড লাউ গাঢ় সবুজ রঙের হয়ে থাকে আর আকৃতি গোলাকার ও লম্বা হয়।

১) ইয়ং জেনারেশন এখন ওয়েট  নিয়ে খুব চিন্তিত। ক্যালোরি লস করতে লাউ এর থেকে বেশি উপকারী আর কিছু নেই। ১৫ ক্যালোরি থাকে ১০০ গ্রাম লাউ এর মধ্যে। এছাড়া ভিটামিন, খনিজ, ও পুষ্টিকর ফাইবার থাকায় আমাদের শরীর যথেষ্ট পুষ্টি পায় এবং অসময় খাওয়ার ইচ্ছে তা চলে যায়।

২) হজমে সাহায্য করে লাউ। আমাদের অতিরিক্ত যে পিত্ত তা বন্ধ করে আমাদের হজমে সহায়তা করে। যাদের পাচনতন্ত্র দুর্বল তারা লাউ খেলে অতি সহজেই হজম হয়ে যায়।

৩) আমাদের শরীরে যদি বয়সের ছাপ আসে তাহলে লাউ খেলে তা কমে যায়। লাউ তে থাকা ভিটামিন সি এবং দস্তা অকাল বার্ধক্য ও চামড়া কুচকে যাওয়া থেকে শরীরকে রক্ষা করে।

৪) লাউ তে থাকে প্রচুর পরিমান জল। গরমকালে প্রচন্ড ঘামের কারণে আমাদের শরীর থেকে জল তার সাথে ইলেক্ট্রোলাইট বেরিয়ে যায়। লাউ খেলে জলের ঘাটতি পূরণ হয়। লাউ খেলে নাক থেকে রক্ত পড়া বন্ধ হয়। লাউ তে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ পটাশিয়াম যা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।