ইউটিউবার হিসেবে ২০২০ সালে বিশ্বে সর্বাধিক আয় করে ৯ বছরের খুদে

ইউটিউবার হিসেবে ২০২০ সালে বিশ্বে সর্বাধিক আয় করে ৯ বছরের খুদে

ইউটিউব থেকে তার উপার্জন বিশ্বে সর্বাধিক। বয়স মাত্র ৯ বছর। তার উপার্জন শুনলে আরও অবাক বনে যাবেন। বছরে ৩০ মিলিয়ন ডলার অর্থাত্‍ ২২০ কোটি টাকা। ভাবা যায়! তবে ভাবতে না পারলেও এটাই সত্যি। মাত্র এই টুকু বয়সেই নিজের ইউটিউব চ্যানেলে পেয়ে গিয়েছে ১২ বিলিয়নের বেশি ভিউ এবং ২৭ মিলিয়ন সাবস্ক্রাইবার।

৯ বছরের রায়ান কাজি থাকে টেক্সাসে। খেলনা আনবক্সিং বা কোনও খেলনার রিভিউ, ছোটদের জন্য নানা সায়েন্সের এক্সপেরিমেন্ট, এসবই তার ইউটিউব ভিডিও'র বিষয়। আমেরিকার বিজনেস ম্যাগাজিন ফোর্বস-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, বিশ্বের সব থেকে বেশি উপার্জন করা ইউটিউবার হিসেবে নিজেকে পরিচিত করেছে রায়ান।

জানা গিয়েছে, রায়ান এবং তার বাবা-মা নাকি মোট ৯টি ইউটিউব চ্যানেল চালান, যার প্রত্যেকটিই বেশ ভাল ভিউ পায়। তবে আমেরিকার ফেডারেল ট্রেড কমিশন, তদন্ত করে এই অভিযোগ এনেছে যে রায়ানদের চ্যানেলগুলির স্পনসর কারা, সে বিষয়ে নাকি সঠিকভাবে কিছু প্রকাশ করা হয়নি।

২০২০ সালে ইউটিউবে সবচেয়ে বেশি আয়কারীদের মধ্যে সকলের ওপরে অবস্থান করছে এই ৯ বছরে শিশুটি।আমেরিকান ওই স্কুলছাত্রের নাম রায়ান কাজী। থাকে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে। যারা ইউটিউব নিয়মিতভাবে দেখেন, তাঁরা কিন্তু জানেন এই রায়ানের কথা।

মানুষ কী না পারে? ইচ্ছেটা কিন্তু ছোটবেলা থেকেই জাগ্রত হয়। সে ইচ্ছে একদিন পৃথিবীর সমান আকার ধারণ করে। এই রায়ানেরও তেমন একটি ইচ্ছে ছোটবেলা জাগ্রত হয়েছিল।শিশুদের খেলনার ভিডিও দেখে রায়ান মাকে প্রশ্ন করে, আমি কেন ইউটিউবে নেই, অন্য সব শিশুই তো আছে?

সন্তানের ইচ্ছের কথা শুনে তিন বছর বয়সে অর্থাত্‍ (২০১৫) রায়ানের মা-বাবা ইউটিউবে 'রায়ানস টয়েস রিভিউ' নামে একটি চ্যানেল খুলে দেন। চ্যানেলটির নাম পরে পাল্টে রাখা হয় 'রায়ানস ওয়ার্ল্ড'।বিশ্বাস করতে কষ্ট হবে, এই চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যা এখন চার কোটি পার হয়ে গেছে।

ইউটিউবে রায়ান একজন প্রতিভাশালী শিশু হিসেবে পরিচিত। তার আসল নাম রায়ান গুয়ান।রায়ানের এ কৃতিত্ব এবারই যে প্রথম তা নয়, সে বরাবর নাম করে আসছে! সকলের প্রিয় একজন মানুষ রায়ান।২০১৮ সালে একইভাবে সবচেয়ে বেশি আয়কারী ইউটিউবারের তকমা ছিল রায়ানের। ২০১৭ সালেও এভাবে চমকে দিয়েছিল রায়ান।

২০১৯ সালেও ইউটিউব থেকে রায়ানের আয় হয় ২৬ মিলিয়ন ডলার। ধারাবাহিকতা বজায় এ বছরও।রীতিমতো তাক লাগিয়ে দিয়েছে শিশু রায়ান।ইউটিউব থেকে ২০২০ সালে সবচেয়ে আয় করা সেরা ১০ ইউটিউবারের তালিকা প্রকাশ পেয়েছে।আয়ের তালিকাটা একটু দেখে নেয়া যাকঃ

১/ রায়ান কাজী: আয় ২৯ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলার (সাবক্রাইবার সংখ্যা ৪১.৭ মিলিয়ন, ভিডিওর ভিউ ১২.২ বিলিয়ন)।

২/ মি. বিস্ট (জিমি ডোনাল্ডসন): আয় ২৪ মিলিয়ন ডলার (সাবক্রাইবার সংখ্যা ৪৭.৮ মিলিয়ন, ভিডিও ভিউ ৩ বিলিয়ন)।

৩/ ডুড পারফেক্ট: আয় ২৩ মিলিয়ন ডলার (সাবক্রাইবার সংখ্যা ৫৭.৮ মিলিয়ন, ভিডিওর ভিউ ২.৭৭ বিলিয়ন)।

৪/ রেহট অ্যান্ড লিংক: আয় ২০ মিলিয়ন ডলার (সাবক্রাইবার ৪১.৮ মিলিয়ন, ভিডিওর ভিউ ১.৯ বিলিয়ন)।

৫/ মার্কিপ্লায়ার (মার্ক ফিশব্যাচ): আয় ১৯ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলার (সাবক্রাইবার সংখ্যা ২৭.৮ মিলিয়ন, ভিডিওর ভিউ ৩.১ বিলিয়ন)।

৬/ প্রিস্টন আর্সমেন্ট: আয় ১৯ মিলিয়ন ডলার (সাবক্রাইবার সংখ্যা ৩৩.৪ মিলিয়ন, ভিডিওর ভিউ ৩.৩ বিলিয়ন)।

৭/ নাসতিয়া: আয় ১৮ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলার (সাবক্রাইবার সংখ্যা ১৯০.৬ মিলিয়ন, ভিডিওর ভিউ ৩৯ বিলিয়ন)।

৮/ বিলিপ্পি (স্টিভেন জন): আয় ১৭ মিলিয়ন ডলার (সাবক্রাইবার সংখ্যা ২৭.৪ মিলিয়ন, ভিডিওর ভিউ ৮.২ বিলিয়ন)।

৯/ ডেভিড ডব্রিক: আয় ১৬ মিলিয়ন ডলার (সাবক্রাইবার সংখ্যা ১৮ মিলিয়ন, ভিডিওর ভিউ ২.৭ বিলিয়ন)।

১০/ জেফরি লিন স্টেইনগার: আয় ১৫ মিলিয়ন ডলার (সাবক্রাইবার সংখ্যা ১৬.৯ মিলিয়ন)।