কয়লা কাণ্ডে নোটিস ধরাতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে সিবিআই

কয়লা কাণ্ডে নোটিস ধরাতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে সিবিআই

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে সিবিআই (CBI)। কয়লাকাণ্ডে নোটিস ধরাতেই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী দল তাঁর বাড়িতে যাচ্ছে বলে অসমর্থিত সূত্রের খবর। তদন্তে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অভিষেকের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শ্যালিকাকে এই নোটিস দেওয়া হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

সিবিআইয়ের এই পদক্ষেপকে 'রাজনৈতিক প্রতিহিংসা' বলে দাবি করেছেন তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। সিবিআই সুত্রের খবর অনুযায়ী, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে কয়লা পাচার কাণ্ডের কিছু টাকা গিয়েছিল। আর সেই টাকার লেনদেনের তদন্ত করতে কালীঘাটে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছে।

কয়লাকাণ্ডে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য কালীঘাটে তৃণমূল সাংসদের বাড়িতে পৌঁছে গিয়েছে সিবিআই। তবে তৃণমূল সাংসদের বাড়িতে কেউ না থাকায় আপাতত নোটিশ দিতে পারছে না সিবিআই।এই নোটিশ কীভাবে দেওয়া হবে আর কাকে দেওয়া হবে সেটা নিয়ে সিবিআই বিশ্লেষণ করছে। কয়লাকাণ্ডে রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য সিবিআই এই নোটিশ নিয়ে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে পৌঁছেছে বলে জানা যাচ্ছে।

ঘটনায় কার্যত তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি। কয়লাকাণ্ডের অন্যতন কিনপিন বিনয় মিশ্রের সঙ্গে তাঁর যোগ থাকার তথ্য উঠে এসেছে তদন্তকারীদের হাতে। জানা গিয়েছে, তদন্তে নেমে অভিষেকের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শ্যালিকার দুটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে টাকা লেনদেনের তথ্য মিলেছে। এর মধ্যে একটি অ্যাকাউন্ট লন্ডন এবং ব্যাংককের। কয়লাকাণ্ডে আজই তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলেই খবর।

এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী আজই তাঁদের নিজাম প্যালেসে হাজিরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই একজন মধ্যস্থতাকারীর হদিস পেয়েছে সিবিআই। তিনি শ্রীরামপুরের একজন চ্যাটার্ড অ্যাকাউন্ট। জানা যাচ্ছে একটি নিয়মিত লেনদেন চলত এই দুই-অ্যাকাউন্টে।সবমিলয়ে একুশের নির্বাচনের আগে কার্যত বিড়ম্বনায় তৃণমূল। উল্লেখ্য বারুইপুরের একটি সভায় এই ব্যাংককের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের প্রসঙ্গ তোলেন। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেন অভিষেকও। জানান তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগের প্রমাণ দিতে পাকলে, প্রকাশ্যে ফাঁসিতেও চড়তে রাজি তিনি।