ক্রিপ্টোকারেন্সিতে লাগাম টানতে বিল আনছে কেন্দ্র

ক্রিপ্টোকারেন্সিতে লাগাম টানতে  বিল  আনছে কেন্দ্র

সংসদের শীতকালীন অধিবেশনেই ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ন্ত্রণ বিল নিয়ে আসতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার (Cryptocurrencty Regulation Bill)৷ কয়েকটি ব্যতিক্রম রেখে সমস্ত বেসরকারি ক্রিপ্টোকারেন্সিকে ভারতে নিষিদ্ধ করাই এই বিলের মূল উদ্দেশ্য৷ শীতকালীন অধিবেশনে যে ২৬টি নতুন বিল কেন্দ্রীয় সরকার পেশ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তার মধ্যে অন্যতম দ্য ক্রিপ্টোকারেন্সি অ্যান্ড রেগুলেশন অফ অফিসিয়াল ডিজিটাল কারেন্সি বিল, ২০২১৷

সময়ের দাবি মেনেই ভারতেও রিজার্ভ ব্যাঙ্ক সরকারি ডিজিটাল মুদ্রা (Cryptocurrencty) নিয়ে আসার পরিকল্পনা নিয়েছে৷ সেই প্রক্রিয়ার প্রথম ধাপ হিসেবেই এই বিল পেশ করতে চাইছে কেন্দ্র৷ সরকারি ডিজিটাল মুদ্রা নিয়ে আসার মূল কাঠামো তৈরি করে দেবে এই বিল৷  বেসরকারি ক্রিপ্টোকারেন্সির ব্যবহারকে নিষিদ্ধ করা হলেও কয়েকটি ক্ষেত্রে অবশ্য ছাড় দেবে কেন্দ্রীয় সরকার৷ যাতে ক্রিপ্টোকারেন্সির লেনদেনের জন্য প্রয়োজনীয় প্রযুক্তির ব্যবহারে অসুবিধে না হয়৷

ক্রিপ্টোকারেন্সির লেনদেন এবং বিনিয়োগ নিয়ে এক সপ্তাহ আগেই প্রথমবার বৈঠকে বসে সংসদীয় প্যানেল৷ সেই বৈঠকেও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল, ক্রিপ্টোকারেন্সির ব্যবহার আটকানো সম্ভব নয়৷ কিন্তু তা নিয়ন্ত্রণ করা প্রয়োজন৷ গত ১৬ নভেম্বর অর্থ বিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটির ওই বৈঠকে পৌরহিত্য করেছিলেন বিজেপি-র জয়ন্ত সিনহা৷ এ ছাড়াও বিভিন্ন ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ, ব্লকচেন অ্যান্ড ক্রিপ্টো অ্যাসেটস কাউন্সিলের প্রতিনিধি, বণিকসভা সহ সংশ্লিষ্ট সবপক্ষের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন৷  

ডিজিটাল মুদ্রার ব্যবহারের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ইতিমধ্যেই সরকার একাধিক বৈঠক করেছে৷ বিভিন্ন মন্ত্রক এবং আরবিআই-এর আধিকারিকদের সঙ্গে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও৷ ভারতে ক্রিপ্টোকারেন্সির অনিয়ন্ত্রিত ব্যবহার নিয়ে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এবং সেবি-র তরফে সতর্কতামূলক প্রচার শুরু হয়েছে৷ বিশেষত খুচরো এবং ছোট বিনিয়োগকারীরা ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিনিয়োগ করতে গিয়ে সমস্যায় পড়তে পারেন বলে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে আরবিআই এবং সেবি-র তরফে৷