বিজেপি ছেড়ে ফের তৃণমূলে ফিরলেন বিধায়ক

বিজেপি ছেড়ে ফের তৃণমূলে ফিরলেন  বিধায়ক

বিষ্ণুপুর: ফের তৃণমূলে যোগ দিলেন বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের বিধায়ক তুষারকান্তি ভট্টাচার্য।  আজ বাঁকুড়ার তৃণমূল ভবনে রাজ্যের মন্ত্রী তথা তৃণমূলের বাঁকুড়া জেলা সভাপতি শ্যামল সাঁতরার হাত ধরে তিনি তৃণমূলে যোগ দেন।

২০১৬ সালে বাম কংগ্রেস জোটের পক্ষে কংগ্রেসের টিকিটে বিষ্ণুপুর বিধানসভা কেন্দ্রে জয়ী হন তুষারকান্তি ভট্টাচার্য। বিধায়ক হওয়ার পরেই ২০১৬ সালের ২১ জুলাইয়ের মঞ্চে তৃণমূলে যোগ দেন তিনি।  ২০১৯- এর লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণার পর তুষারকান্তি ভট্টাচার্য দিল্লিতে বিজেপির  কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের হাত ধরে গেরুয়া শিবিরে যোগ দিয়েছিলেন। আজ ফের তিনি তৃণমূলে ফিরে আসলেন।

এ দিন বিষ্ণুপুরের বিধায়কের সঙ্গে তৃণমূলে যোগ দেন তাঁর বেশ কয়েকজন অনুগামী।  তৃণমূলে যোগ দিয়ে তুষারকান্তি ভট্টাচার্য বলেন, 'অভিমানে একদিন  ঘর ছেড়ে চলে গিয়েছিলাম।  আজ ফের নিজের ঘরে ফিরতে পেরে ভাল লাগছে।'  বিধায়ক তুষারকান্তি ভট্টাচার্যকে দলে স্বাগত জানিয়েছেন রাজ্যের মন্ত্রী তথা তৃণমূলের বাঁকুড়া জেলা সভাপতি শ্যামল সাঁতরা।

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বাঁকুড়ার দু'টি লোকসভা কেন্দ্রই দখল করে বিজেপি৷ ফলে জেলায় বড়সড় ধাক্কা  খেয়েছিল শাসক দল৷ তার পরই ফের সংগঠন মজবুত করার দিকে নজর দেয় তৃণমূল কংগ্রেস৷ ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে বিজেপি-তে ফাটল ধরিয়ে ফের বাঁকুড়া পুনরুদ্ধারে আত্মবিশ্বাসী শাসক দল৷ যদিও এখনও এই বিষয়ে জেলা বিজেপি নেতৃত্বের প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি৷কেন বছরখানেকের মধ্যে দলবদল করলেন তিনি? সদ্য দলত্যাগী বিধায়ক বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেভাবে বাংলার উন্নয়ন করে চলেছেন তাঁর কাজের সঙ্গী হতে আমার তৃণমূলে আসা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সর্বদা মানুষের পাশে থেকে কাজ করেন। আর সে কারণেই সাধারণ মানুষের কাছে মুখ্যমন্ত্রী এত জনপ্রিয়। মুখ্যমন্ত্রীর সৈনিক হিসেবে যোগদান করতে তৃণমূল কংগ্রেসের ছত্রছায়ায় আসা।”