টানা বৃষ্টিতে ভাসছে উত্তর, জেনে নিন আজকের আবহাওয়ার খবর

টানা বৃষ্টিতে ভাসছে উত্তর, জেনে নিন আজকের  আবহাওয়ার খবর

বৃষ্টিতে ভাসছে উত্তর। টানা বৃষ্টিতে জল থৈ থৈ শিলিগুড়ি থেকে গোটা ডুয়ার্স। দক্ষিণে বর্ষা ইতিমধ্যেই প্রবেশ করে গিয়েছে। যদিও কলকাতা সহ পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে গত ২৪ ঘণ্টায় এক-দু পশলার বেশি বৃষ্টি হয়নি। তবে আগামী ২৪ ঘণ্টায় বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা বেশ কয়েকটি জেলায়। পূর্ব মেদিনীপুর, উত্তর-দক্ষিণ ২৪ পরগনা তে দু-এক পশলা ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা।

বর্জ্রবিদ্যুৎ সহ হালকা মাঝারি বৃষ্টি চলবে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায়। মঙ্গলবারের দিনভর আকাশ মেঘলা থাকবে বলেই জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। তবে এখনই তাপমাত্রা কমার কোনও সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়ে দিয়েছে আলিপুর হাওয়া অফিস।  আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, আগামী ৪৮ ঘণ্টায় মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টিতে ভিজবে পূর্ব মেদিনীপুর সহ দুই পরগনা।

এছাড়াও দক্ষিণের বাকি জেলা গুলিতেও বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। বাঁকুড়া, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, ঝাড়গ্রাম এবং পশ্চিম মেদিনীপুরে বর্জ্রপাতের সতর্কতা জারি করা হয়েছে। কলকাতাতেও দু-এক পশলা বর্জ্রবিদ্যুৎসহ বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। আপাতত দিনের তাপমাত্রার কোনও পরিবর্তনের সম্ভাবনা নেই। গত ৩ জুন উত্তরবঙ্গে বর্ষা প্রবেশ করলেও দক্ষিণবঙ্গে মৌসুমী বায়ু প্রবেশ করেছে তার ১৫ দিন পর।

আজ উত্তর এবং দক্ষিণ দুই বঙ্গেই রয়েছে বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা। দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা নেই।  গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিতে ভাসছে উত্তরবঙ্গ। আগামী ২৪ ঘণ্টায় দার্জিলিং, কালিম্পং, জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার এবং কোচবিহারে এক নাগাড়ে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস। বৃষ্টিতে জলমগ্ন শিলিগুড়ি। একাধিক জায়গায় জমে জল।

রাজ্যের পাশাপাশি গোটা দেশজুড়েই বর্ষার মরশুম। বৃষ্টিপাত হয়েছে উত্তরপূর্ব হিমালয়ে। সিকিমে প্রবল বৃষ্টিতে ব্যাহত হয়েছে জনজীবন। বিহারেরও প্রবল বৃষ্টিপাত চলছে। ১৭ জেলায় সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এদিকে, দীর্ঘদিনের অস্বস্তিকর পরিস্থিতি থেকে রেহাই পেয়েছে দিল্লিবাসী। তীব্র দাবদাহ শেষে বৃষ্টিপাত স্বস্তি ফিরিয়েছে। একধাক্কায় ১০ ডিগ্রি পর্যন্ত কমেছে রাজধানী শহরের তাপমাত্রা।

গত ২৪ ঘণ্টায় দিল্লিতে ১ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। তাপমাত্রা নেমে দাঁড়িয়েছে ৩০.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যদিও এখনও বজায় রয়েছে আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি। বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ এখনও ৯৬ শতাংশ। যদিও ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়া কিছুটা হলেও অস্বস্তি থেকে মুক্তি দিচ্ছে। কঙ্কন গোয়া ও মুম্বইয়ে প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনা।