মালদায় বিজেপি নেতার পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে মিলল দম্পতির রক্তাক্ত মৃতদেহ

মালদায় বিজেপি নেতার পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে মিলল দম্পতির রক্তাক্ত মৃতদেহ

মালদার (Malda) গাজোলের ঘোষপাড়া এলাকার এক পরিত্যক্ত বাড়ি থেকে নিখোঁজ দম্পতির রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল। ওই দম্পতিকে খুনের অভিযোগে কৃষ্ণকমল অধিকারী নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গৌতম সরকার ও তাপসী সরকার নামে ওই দম্পতির বাড়ি উত্তর দিনাজপুরের (Uttar Dinajpur) ইটাহার থানা এলাকায়। মৃতের পরিবার সূত্রে খবর, গত ৮ মে ওই দম্পতিকে চাকরি দেওয়ার নাম করে মালদার গাজোলে নিয়ে যান কৃষ্ণকমল।

 পুলিশ জানিয়েছে গৌতমের শরীরে একাধিক জায়গায় ভারী বস্তুর আঘাত রয়েছে। তাপসীর দেহেও মিলেছে ক্ষত চিহ্ন। দেহ দুটি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ। নিহত দম্পতির পরিবারের অভিযোগ, এই কৃষ্ণকমল অধিকারী তাপসীকে নার্সের চাকরি দেওয়ার নামে চার লক্ষ টাকা নিয়েছিল। গত ৮ মে ইটাহারে গৌতম-তাপসীর বাড়িতে গিয়েছিল কৃষ্ণকমল। সেদিনই দুজনকে মালদহে নিয়ে আসে। পরিবারের অভিযোগ, তারপর থেকেই গৌতমের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

শেষমেশ গত বুধবার ইটাহার থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করে গৌতমের পরিবার। বৃহস্পতিবার সকালে ইটাহার থেকে গাজোলে এসে বিজেপি নেতার বাড়ি ঘিরে গৌতমের আত্মীয়স্বজন ও প্রতিবেশীরা বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। এরপর পুলিশ এসে বাড়ির ভিতর থেকে দম্পতির রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার করে। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান ৮ মে তাঁরা এলেও খুন করা হয়েছে দুএকদিনের মধ্যেই। কেন এই প্রতারণা, এর পিছনে আরও বড় চক্র রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।