দেশের বাণিজ্যিক সক্রিয়তা বাড়তে শুরু করেছে জোর কদমে!

দেশের বাণিজ্যিক সক্রিয়তা বাড়তে শুরু করেছে জোর কদমে!

করোনা মহামারীর প্রভাব কাটিয়ে ভারত আবার তার চেনা ছন্দে ফিরতে শুরু করেছে। ভারতে ধীরে ধীরে বাড়তে শুরু করেছে বিজনেস অ্যাকটিভিটি। ভারতে বিজনেস অ্যাকটিভিটি বাড়তে শুরু করার ফলে কাজের চাহিদাও বাড়তে শুরু করছে। করোনা মহামারীর ফলে যাদের কাজ চলে গিয়েছিল ধীরে ধীরে তারা আবার ফিরতে শুরু করেছে কাজে। করোনার সময় যাদের কাজ চলে গিয়েছিল, তারা সবাই কাজ না পেলেও ধীরে ধীরে অনেকেই শুরু করেছে নতুন কাজ।

এর ফলে ভারতের অর্থনীতির চাকা আবার ঘুরতে শুরু করেছে। ভারতে করোনার টিকাকরণের ফলে করোনার প্রভাব অনেকটাই কম। ধীরে ধীরে স্বাভাবিক অবস্থার দিকে ফিরতে শুরু করেছে ভারতবর্ষ। এর ফলে ভারতের বিজনেস অ্যাকটিভিটিও বাড়তে শুরু করেছে।  করোনা মহামারী শুরু হওয়ার পর থেকে আগের সপ্তাহেই বেড়েছে ভারতের বিজনেস অ্যাকটিভিটি।

ভারতের বিজনেস অ্যাকটিভিটি ১৪ শতাংশ বেড়ে উচ্চস্তরে পৌঁছে গিয়েছে। একটি রিপোর্ট অনুযায়ী ভারতের বিজনেস অ্যাকটিভিটি বাড়ার ফলে কাজের চাহিদা তৈরি হয়েছে এবং অনেকেই আবার ফিরছে তাদের কর্মস্থলে। ব্যবসার গতিবিধি সূচক মাপার 'বিজনেস রিজাম্পশন ইনডেক্স' অনুযায়ী ভারতের বিজনেস অ্যাকটিভিটির সূচক ২১ নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে ১১৪-তে পৌঁছে গিয়েছে, যা আগের সপ্তাহেও ১১০.৩ তে ছিল।

শেষ সপ্তাহে এটি প্রায় ১৪ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে।  জাপানের ব্রোকারেজ কোম্পানির রিপোর্ট অনুযায়ী Google-এর কর্মস্থলের ক্ষেত্রে প্রায় ১৮.১ শতাংশ বৃদ্ধি হয়েছে, কিন্তু শ্রম ভাগিদারী ছিল ৩৯.৮ শতাংশ। এছাড়াও বিদ্যুতের চাহিদা আগের সপ্তাহ থেকে ০.২ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। এর ফলে আগের সপ্তাহ থেকে বিজনেস অ্যাকটিভিটি বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় ৫.৫ শতাংশ। চলতি আর্থিক বর্ষে এর আর্থিক বৃদ্ধি ৯.২ শতাংশ হওয়ার অনুমান করা হচ্ছে।

এর থেকেই পরিষ্কার যে ভারতের কাজের বাজার ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরতে শুরু করেছে।  ২০২১ সালের ২১ নভেম্বরের সেই সপ্তাহের বিজনেস অ্যাকটিভিটি ১৪ শতাংশ বেড়ে পৌঁছে গিয়েছে উচ্চস্তরে। এর থেকেই আশা করা হচ্ছে যে ধীরে ধীরে এটি আরও বাড়তে থাকবে। ভারতে করোনার গ্রাফ ক্রমশ কম হওয়ায় তা আরও আশার সৃষ্টি করেছে। বিজনেস অ্যাকটিভিটি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে চাকরির বাজারের গ্রাফও ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী হতে থাকবে। এর ফলে বেকারত্বের মাত্রা কম হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। করোনার ফলে যারা কাজ হারিয়েছিল তারা আবার ধীরে ধীরে ফিরতে শুরু করেছে কাজে।