হিন্দুধর্ম গ্রহণ করলেন মুসলিম দেশের প্রাক্তন প্রেসিডেন্টের মেয়ে

হিন্দুধর্ম গ্রহণ করলেন মুসলিম দেশের প্রাক্তন প্রেসিডেন্টের মেয়ে

বিশ্বের সব থেকে বড় মুসলিম (muslim) প্রধান দেশ ইন্দোনেশিয়ায় (indonesia) ধর্ম পরিবর্তনের বড় ঘটনা। সেখানকার প্রথম প্রেসিডেন্ট সুকর্ন-র (Sukarno) কন্যা সুকমাবতী সুকর্ণপুত্রী (sukmawati sukarnoputri ) ইসলাম (islam) ধর্ম ছেড়ে হিন্দু ধর্ম (hinduism) গ্রহণ করেছেন। মঙ্গলবার এই ধর্ম পরিবর্তনের পর্ব চলে সেখানে। ইন্দোনেশিয়ার প্রথম প্রেসিডেন্ট সুকর্ণর কন্যার নাম সুকমাবতী সুকর্ণপুত্রী সুধি ওয়াদানির মাধ্যমে হিন্দুধর্ম গ্রহণ করেন। সুকমাবতী সুকর্ণপুত্রীর বয়স ৬৯ বছর।

ধর্ম পরিবর্তনের অনুষ্ঠানটি হয় বালির বুলেলেং রিজেন্সির সুকর্ণ সেন্টার হেরিটেজ এরিয়ায়। প্রাক্তন প্রেসিডেন্টের নামেই নামকরণ হয়েছে এলাকার। সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, বালিতে বসবাসকারী সুকমাবতীর দিদা ইদা আয়ু নিয়োমান রাই স্রিম্বেনের প্রভাব কাজ করেছে এই ধর্মান্তরণে। এটা উল্লেখ করা যেতে পারে ইন্দোনেশিয়ার বালিতে প্রধান ধর্ম হিন্দু।

সুকমাবতীর হিন্দুধর্ম গ্রহণ সিদ্ধান্ত সম্পর্কে সংবাদ মাধ্যমকে জানাতে গিয়ে তাঁর আইনজীবী সংবাদ মাধ্যমকে বলেছেন, হিন্দু ধর্মতত্ত্বের সমস্ত মতবাদ এবং আচার অনুষ্ঠান সম্পর্কে তাঁর ব্যাপক জ্ঞান রয়েছে। সমর্থন রয়েছে অন্য আত্মীয়দেরও। সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, সুকমাবতীর এক ঘনিষ্ঠ বন্ধু জানিয়েছেন, তাঁর অন্য আত্মীয়দেরও এই ধর্ম পরিবর্তনে আশীর্বাদ রয়েছে। ওই বন্ধু এই ধর্ম পরিবর্তনের ঘটনাকে সুকর্ণর পরিবারের ধর্মীয় সহনশীলতার একটি উজ্জ্বল উদাহরণ হিসেবেই বর্ণনা করেছেন।

ওই বন্ধু আরও বলেছেন, গত প্রায় ২০ বছর ধরে সুকমাবতী হিন্দুধর্মের প্রতি আগ্রহী ছিলেন। তিনি বালিক বড় মন্দিরগুলিতেও গিয়েছেন। এছাড়াও তিনি রামায়ন এবং মহাভারতের মতো মহাকাব্য পড়েছেন। রাজনীতিতে সক্রিয় । ডাচ ঔপনিবেশ থেকে ইন্দোনেশিয়াকে মুক্ত করার পিছনে সুকর্ণ-র পরিবারের অবদান ভোলার নয়। সুকমাবতীর মাও দেশের স্বাধীনতা লাভের জন্য হওয়া সংগ্রামে জড়িয়ে পড়েছিলেন। ইন্দোনেশিয়া স্বাধীনতা লাভ করে ১৯৪৫ সালে। এরপর ২২ বছর দেশের প্রেসিডেন্ট ছিলেন সুকর্ণ।

১৯৬৭ সালে তিনি ক্ষমতাচ্যুত হন। একটা সময়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরুর সঙ্গেও তাঁর ভাল সম্পর্ক ছিল। সুকমাবতীর বড় বোন মেঘাবতী সুকর্ণপুত্রী ইন্দোনেশিয়ার পঞ্চ প্রেসিডেন্ট ছিলেন। কিনিই ইন্দোনেশিয়ান ন্যাশনাল পার্টি তৈরি করেছিলেন। প্রসঙ্গত ২০১৮ সালে সুকমাবতীর বিরুদ্ধে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলেছিল একটি মুসলিম মৌলবাদীদের সংগঠন। পরে তিনি অবশ্য ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন। সেই পরিস্থিতিতে ২০২১-এ এই ধর্ম পরিবর্তন তাত্‍পর্যপূর্ণ ঘটনা বিশ্বের সব থেকে বড় মুসলিম প্রধান দেশে।