নদিয়ায় মহিলার মৃত্যুর অভিযোগে মৃত্যদেহ নিয়ে বিক্ষোভ রোগীর পরিবারের

নদিয়ায় মহিলার মৃত্যুর অভিযোগে মৃত্যদেহ নিয়ে বিক্ষোভ রোগীর পরিবারের

ফুলিয়া নদিয়ার ফুলিয়ার রোগীর পরিবার অভিযোগ গত কয়েকদিন আগে ফুলিয়ার বাসিন্দা মল্লিকা বসাক তার পেটে টিউমার নিয়ে স্থানীয় ড: সৈকত সরকার নামে এক গাইনেকোলজিস্ট ডাক্তারকে চেম্বারে দেখালে সেখানে বেশ কয়েকদিন চিকিৎসা করার পর সুরাহা না হওয়ায় অপারেশনের সিদ্ধান্ত নেয় ঐ ডাক্তার ।

তখন ঐ ডাক্তার একটি বেসরকারি নার্সিং হোমে অপারেশনের কথা জানালে ঐ নার্সিং হোম জানায় সেখানে স্বাস্থ্য সাথী কার্ডে চিকিৎসা হয় না তারপরই রাণাঘাটের অন্য একটি বেসরকারি নার্সিং হোমে অপারেশনের জন্য ভর্তি করা হয় রুগিকে । সেখানে সমস্ত পরিক্ষা করে অপারেশন করার পর কিছুক্ষন ভালো থাকলেও তারপরই আরো বেশি অসুস্থ হতে থাকে তারপরই সেই রুগিকে রেফার করা হয় কলকাতার আর জি কর হাসপাতালে ।

অভিযোগ সেই সময় সমস্ত রকম কাগজ পত্র রুগি পরিবার চাইলেও কোনো কাগজপত্র ঐ ডাক্তারের তরফ থেকে দেয়নি বরং বলা হয়েছে ফোনে আমি বলে দিচ্ছি আপনারা আমার নাম বললেই ভর্তি হয়ে যাবে ।পরে রুগি পরিবার আর জি করে রুগি নিয়ে গেলে তারা ঐ ডাক্তারের পরিচয় দিলে ভর্তি নেয় আর জি কর ।

সেখানে আবার অপারেশন করতে বলা হয় রুগি পরিবারকে সেখানে প্রায় ৪ ঘন্টা অপারেশন করে বলা হয় আগের যে নার্সিং হোমে অপারেশন করা হয় সেখানে ভুল অপারেশন করা হয়েছে যার ফলেই ওনাকে বাঁচানো সম্ভব নয় । পরে মৃত্যদেহ নিয়ে রানাঘাটের নার্সিংহোমের সামনে বিক্ষোভ দেখায় রুগি পরিবার । অভিযোগ সেখানে রুগি পরিবারকে মারধরও করা হয় নার্সিংহোমের পক্ষ থেকে ।

যদিও নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ জানান আমাদের এই ব্যাপারে কোনো কিছু জানা নেই ,অপারেশন থিয়েটরে কি হয়েছে সেটা শুধু ডাক্তার বাবু বলতে পারবেন । ঐ এলাকার স্থানীয় পঙ্চায়েত প্রধানের স্বামী জানান আমরা পুরো ব্যাপারটি জানি যেটুকু জানা গেছে ঐ ডাক্তার সৈকত সরকার ভুল অপারেশন করেছেন যার জন্যই এই রকম ভাবে অসময়ে চলে যেতে হলো । আমরা স্বাস্থ্য দপ্তরকে জানাবো যাতে ঐ ডাক্তারে যাতে কঠোর শাস্তি হয় ।