রাজ্য সরকারের নতুন প্রকল্প রেশন ব্যবস্থাকে ঘিরে

রাজ্য সরকারের নতুন প্রকল্প রেশন ব্যবস্থাকে ঘিরে

আজবাংলা   সাধারন মানুষের রেশন নিয়ে দুর্ভোগ ও হয়রানির শেষ নেই। তাই সমস্ত রকমের অসুবিধার জট কাটাতে নতুন এক ব্যবস্থা গ্রহণ করল রাজ্য সরকার। বর্তমান এই করোনার পরিস্থিতিতে খাদ্য দফতর এক নতুন তথ্য প্রকাশ করল। এখন থেকে রেশন কার্ড থেকে বোঝা যাবে, গ্রাহকরা মাসে কত পরিমাণ এবং কী খাদ্য সামগ্রী রেশন থেকে পাবেন। রাজ্যের খাদ্য দফতর থেকে ১৯টি স্লাইড তৈরি করা হয়েছে বাংলাতে আর ইংরেজিতে। রাজ্যজুড়ে প্রচার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ও আরো জানানো হয়েছে, এই প্রচার চালানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতেও।

খাদ্য সূত্রের থেকে জানা গেছে, রাজ্যে রেশন নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় নানান সময়ে নানান অভিযোগ উঠেছে। সমস্ত রকমের অভিযোগ পাওয়ার পরে ব্যবস্থা নিয়েছে খাদ্য দফতর। এরপরেই সাধারণ মানুষকে রেশন সংক্রান্ত অধিকার সম্পর্কে জানাতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। রেশন বিলির সময় যাতে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখে সেই বিষয়ে নজর রাখা হবে। ওদিক রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়েছেন, "স্পেশাল কুপন হোক বা ডিজিটাল রেশন কার্ডের গ্রাহক। প্রত্যেকের জন্যে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন গুদাম ঘর থেকে খাদ্য সামগ্রী সঠিক জায়গায় পৌছেও যাচ্ছে। কোথাও কোনও ধরণের অসুবিধা নেই।"

অন্যদিকে খাদ্য দফতর প্রতিদিনই জেলা ওয়াড়ি রেশন নিয়ে রিপোর্ট তৈরি করছে। সেখানে সমস্ত জেলার রেশনের তথ্য থাকছে। এছাড়া, রিপোর্টে থাকছে, কে বা কারা রেশন ডিলার থেকে চুরি করছেন, বা কাদের সাসপেন্ড করা হয়েছে সেটাও রিপোর্টে উল্লেখ থাকছে। আবার অন্যদিকে খাদ্য দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে , রাজ্যবাসীর চাহিদা মেটানোর মত পর্যাপ্ত রেশন তাদের কাছে আছে। কিছু মানুষ বিভ্রান্তি ও গণ্ডগোলের উদ্দেশ্যে অপপ্রচার করছে। রাজ্যসরকার এর জন্য ব্যবস্থা নেবে। আরও খাদ্য দফতর থেকে বলা হয়েছে, কেউ চাইলে মাসের শেষ দিকে গিয়ে নিজের রেশন একবারে তুলতে পারবেন।