বাড়ির কাছে টিকাকরণ কেন্দ্রের ব্যবস্থার গাইডলাইন প্রকাশ করলো সরকার

বাড়ির কাছে টিকাকরণ কেন্দ্রের ব্যবস্থার গাইডলাইন প্রকাশ করলো সরকার

 ৬০ ঊর্ধ্ব সহ বিশেষভাবে সক্ষমদের জন্য বাড়ির কাছে টিকাকরণ কেন্দ্রের ব্যবস্থা করল কেন্দ্রীয় সরকার। এই নিয়ে গতকাল, বৃহস্পতিবার গাইডলাইনও প্রকাশ করা হয়েছে। মূলত বৃদ্ধ সহ বিশেষভাবে সক্ষম মানুষদের টিকাকরণ নিশ্চিত করতে এই সিদ্ধান্ত কেন্দ্রীয় সরকারের। ন্যাশনাল এক্সপার্ট গ্রুপ অন ভ্যাকসিন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ফর কোভিড ১৯ তাদের টেকনিক্যাল কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী এই বিষয়ে প্রস্তাব দিয়েছিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের। গতকাল সেই প্রস্তাবেই সম্মতি দিল কেন্দ্র।

নয়া সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ৬০ বছরের বেশি বয়সী বা বয়স নির্বিশেষে যাঁরা বিশেষভাবে সক্ষম তাঁরা বাড়ির কাছে ভ্যাকসিন নিতে পারবেন। কেন এই নিয়ম? কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক সূত্রে খবর, ৬০ বছরের বেশি বয়সী বা যাঁরা বিশেষভাবে সক্ষম তাঁরা যেন কোনওভাবেই টিকাকরণ থেকে বঞ্চিত না হন, তা নিশ্চিত করতেই এই সিদ্ধান্ত সরকারের। সব ধরনের সুরক্ষা এবং নিয়ম মেনেই টিকাকরণ হবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্র।

এই নিয়ে রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলিকে গাইডলাইন দিয়েছে কেন্দ্র। এই কর্মসূচির নাম নিয়ার টু হোম কোভিড ভ্যাকসিনেশন সেন্টার বা এনএইচসিভিসি। কেন্দ্র জানিয়েছে, স্বাস্থ্য কেন্দ্র নয় এমন জায়গায় টিকাকরণ শুরু করতে হবে। উদাহরণ দিয়ে কেন্দ্র জানিয়েছে বৃদ্ধ এবং বিশেষভাবে সক্ষমদের স্বার্থে কমিউনিটি সেন্টার, পঞ্চায়েত ঘর, স্কুলবাড়ি বা বৃদ্ধাশ্রমে টিকাকরণ করা যেতে পারে।

জনসংখ্যা অনুযায়ী কোথায় এই কেন্দ্র হবে তা ঠিক করবে জেলা বা শহরের টাস্ক ফোর্স। সংশ্লিষ্ট এলাকায় কত ভ্যাকসিন প্রয়োজন, কীভাবে টিকাকরণ হবে তা ঠিক করবেন টিকাকরণ কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্তরা। জেলা বা শহরের টাস্ক ফোর্স সংশ্লিষ্ট এলাকায় টিকাকরণ পরিকল্পনা এবং বাস্তবায়নের দায়িত্বে থাকবে। প্রতিটি কেন্দ্রে থাকবে এনএইচসিভিসি দল।

যে দলে থাকবেন একজন চিকিত্‍সক, ভ্যাকসিনেটর, ভ্যাকসিনেশন অফিসার। ভ্যাকসিনেশন অফিসার ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য অ্যাপে রেজিস্টার করতে সাহায্য় করেবন। এছাড়াও ২ থেকে ৩ জন থাকবেন ভিড় সামলানোর দায়িত্বে। যাঁরা ভ্যাকসিন নেবেন তাঁদের রেজিস্ট্রেশন নিয়েও বিস্তারিত গাইডলাইন প্রকাশ করেছে কেন্দ্র। কো-উইন অ্যাপের মাধ্যমে রেজিস্ট্রার করতে হবে। অথবা সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে গিয়েও করা যাবে যাবে রেজিস্ট্রার।