শুরু হতে চলেছে বেহালা ক্ল্যাসিক্যাল ফেস্টিভ্যাল নবম বর্ষের সুরেলা সফর

শুরু হতে চলেছে বেহালা ক্ল্যাসিক্যাল ফেস্টিভ্যাল নবম বর্ষের সুরেলা সফর

আজবাংলা       শ্যাম সুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স নিবেদন করছে বেহালা ক্ল্যাসিক্যাল ফেস্টিভ্যাল এর গৌরবময় নবম বর্ষের চারদিন ব্যাপী ভারতীয় শাস্ত্রিয় সঙ্গীতের মহা সমারোহ। বিগত বছর গুলোর মতোই  বেহালা ব্লাইন্ড স্কুলের মাঠে আজ  ৯ জানুয়ারি থেকে ১২ জানুয়ারি হতে ( প্রতিদিন সন্ধ্যা ৫:৩০টা থেকে )  চলবে সঙ্গীতের এই উৎসব। এই অনুষ্ঠানের আয়োজনে রয়েছেন বেহালা সাংস্কৃতিক সম্মিলনী।

২০১৩ এর মার্চে পন্ডিত রবি শঙ্কর-কে স্মরণ করে পথ চলা শুরু বেহালা ক্ল্যাসিক্যাল ফেস্টিভ্যাল এর।এবারের নবম বছরের উদযাপনে মন্চ সুরের ছটায় আলোকময় করবেন পন্ডিত অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, পন্ডিত বিক্রম ঘোষ, পন্ডিত শুভেন চ্যাটার্জি,ভেঙ্কটেশ কুমার, পন্ডিত কুমার বোস,পন্ডিত শুভঙ্কর বন্দোপাধ্যায়,পন্ডিত কুশল দাস,সরওয়ার হুসেন,রাকেশ চৌরাসিয়া,রাহুল শর্মা,কৌশিকি চক্রবর্তী,জ্যোতি গোহো, সংযুক্তা দাস সহ মোট ছাব্বিশ জন শিল্পী। এই করোনা কালে এই শহরে চারদিন ব্যাপী এত বড় সঙ্গীত সন্ধ্যার আয়োজন এই প্রথম এবং অন্যতম।

 এই বছরের "শ্যাম সুন্দর সর্বত্তম সম্মান" ৯ ই জানুয়ারী উদ্বোধনের দিন শ্যাম সুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স এর পক্ষ থেকে  পন্ডিত অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়কে প্রদান করা হবে। বিগত বছরে জীবনকৃতি এই সম্মানে সম্মানিত হয়ে এসেছেন সমাজের নানা পেশার গুণীরা- উস্তাদ আমজাদ আলী খান, পন্ডিত বিরজু মহারাজ, আনন্দজি বিরজি শাহ,পি .কে.ব্যানার্জি,পন্ডিত বিশ্বমোহন ভাট, কবিতা  কৃষ্ণমূর্তি,হরিহরণ প্রমুখ।

বেহালায় শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের কোনো অনুষ্ঠান হতোনা।সেই থেকেই এই অনুষ্ঠানের ভাবনা। বেহালা সাংস্কৃতিক সম্মিলনীর উদ্যোগে শ্যাম সুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স এর পৃষ্ঠপোষকতায় শীতের মরসুমে শহর কলকাতার এই অনুষ্ঠান শাস্ত্রীয় সঙ্গীত প্রেমীদের কাছে এক পরম প্রাপ্তি বটে।