নদীয়ার সাপের কামড়ে মৃত্যু হলো গৃহবধূর

নদীয়ার সাপের কামড়ে মৃত্যু হলো গৃহবধূর

মলয় দে    শান্তিপুর :-   ঘুমের ঘরে সাপের কামড়ে মৃত্যু হল এক মহিলার এলাকায় ব্যাপক আতঙ্ক পরিবারে নেমে আসে শোকের ছায়া। ঘটনাটি শান্তিপুর পৌরসভার অন্তর্গত বাইগাছি পাড়া সেন পাড়া এলাকায়। পরিবারের কাছ থেকে জানা যায় 46 বছরের গৃহবধু কাঞ্চনা বিশ্বাস,রাতে  বিছানায়  ঘুমাচ্ছিলেন! পরিবারের অন্যান্য সদস্যরাও ঘুমিয়ে পড়েছিলেন।

হঠাৎই চিৎকার শুনতে পারে পরিবারের লোক জন কাঞ্চনা বিশ্বাসকে জিজ্ঞাসা করতেই তিনি বলেন আমাকে কিসে যেন কামড়ে দিয়েছে। পরিবারের লোকজন চোখ ফিরিয়ে দেখে একটি কালো রঙের গায়ে সাদা দাগ সাপটি অন্যত্র বেরিয়ে যাচ্ছে! পরিবারের লোকজন তখনই বুঝতে পারে কাঞ্চনা বিশ্বাসকে সাপে কামড়েছে।

তড়িঘড়ি শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে অবস্থা অবনতি হলে তাকে স্থানান্তর করার নির্দেশ দেওয়া হয়, নদীয়ার কল্যাণী জে এন এম হাসপাতালে। স্থানান্তরিত করার আগেই শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালেই মৃত্যু হয় ওই মহিলার। স্বভাবতই এই ঘটনা ঘটার পরে এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া পাশাপাশি কান্নায় ভেঙে পড়ে গোটা পরিবার। পরিবারের লোকজন এও জানান, বিষাক্ত সাপের বিবরণ অনুযায়ী ওই মহিলাকে কালাচ সাপে দংশন করেছে।

স্বভাবতই শান্তিপুরের বিভিন্ন এলাকা থেকে এর আগেও একাধিকবার উদ্ধার হয়েছে বিষাক্ত কালাচ সাপ যার কারণে রীতিমতো গোটা শান্তিপুরে এখন আতঙ্কের ছায়া। আবারো ঘুমন্ত অবস্থায় কালাচ সাপের কামড়েই মহিলার মৃত্যু হওয়াই রাতের ঘুম কেড়েছে শান্তিপুর বাসির। মৃতদেহটি উদ্ধার করে শান্তিপুর থানার পুলিশ এবং ময়নাতদন্তের জন্য রানাঘাট মহাকুমা হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করে।

তবে বনদপ্তর এর পক্ষ থেকে একাধিকবার জানানো হয়েছে কালাচ সাপের উপদ্রব থেকে রক্ষা পেতে মানুষকে সচেতন হতে হবে। বিশেষ করে রাতের বেলা অন্ধকার জায়গা এড়িয়ে চলতে হবে, রাতে শোবার আগে প্রত্যেক গৃহস্থ বাড়ির সদস্যদের উচিত বিছানা পরিস্কার করে মশারি টাঙিয়ে ঘুমানো। না হলে আবারও মৃত্যুর মতো বড়সড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।