ইজ্জত’ বাঁচাতে মসজিদের ইমামকে পিটিয়ে খুন, যাবজ্জীবন কারাদণ্ড নির্যাতিতার

ইজ্জত’ বাঁচাতে মসজিদের ইমামকে পিটিয়ে খুন, যাবজ্জীবন কারাদণ্ড নির্যাতিতার

ধর্ষণের হাত থেকে বাঁচতে মসজিদের ইমামকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মেরে ফেলেছিলেন। এর জেরে রবিবার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হল এক যুবতী। ঘটনাটি ঘটেছে বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জ জেলার কুলিয়ারচর উপজেলায়।

সাজাপ্রাপ্ত ওই গৃহবধূর নাম ময়না আক্তার। এই মামলায় তাঁর ভাই মনির হোসেনকেও সাত বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ময়নাকে ২ লক্ষ ও মনিরকে ৫০ হাজার টাকা আর্থিক জরিমানা করেছেন কিশোরগঞ্জের প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মহম্মদ আবদুর রহিম।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বাংলাদেশ কিশোরগঞ্জের বৌলাই পূর্ব বরাটি গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে মিজানুর রহমান কুলিয়ারচর উপজেলার উসমানপুরের একটি মসজিদে ইমামতি করত।

২০১৬ সালের ১৪ আগস্ট রাত তিনটের সময় স্থানীয় বাজরা-চৌমুড়ি রোডের পাশ থেকে হাফেজ মিজানুর রহমান মিজান নামে ওই ইমামের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। বিষয়টি নিয়ে প্রবল উত্তেজনাও ছড়ায় এলাকায়। এর পরের দিন নিহতের ভাই মহম্মদ নুরুল হক অজ্ঞাত পরিচয়ের ব্যক্তিদের নামে কুলিয়ারচর থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করেন।