পাঁচ সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল ১৭ জনের বিরুদ্ধে

পাঁচ সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল ১৭ জনের বিরুদ্ধে

স্বামীর সঙ্গে বাজার থেকে ফেরার সময় পথ আটকে এক গৃহবধূকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল সতেরো জনের বিরুদ্ধে। ওই মহিলা পাঁচ সন্তানের জননী। গত মঙ্গলবার রাত আটটা নাগাদ নৃশংস এই ঘটনা ঘটেছে ঝাড়খণ্ডের দুমকা জেলার মুফাসসিল থানা এলাকায়।

নির্যাতিতা বুধবার পুলিশে অভিযোগ জানিয়েছেন। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই এফআইআর দায়ের করে তদন্তে নেমেছে পুলিশ। নির্যাতিতার মেডিক্যাল পরীক্ষা করা হয়েছে। পুলিশ জানাচ্ছে, এখনও পর্যন্ত তিনি একজনকেই শনাক্ত করতে পেরেছেন।

সেই অভিযুক্তকে আটক করেছে পুলিশ। সে ওই অপরাধে যুক্ত ছিল কিনা তা খতিয়ে দেখে জেলে পাঠানো হবে। বাকি ১৬ জনের খোঁজে তল্লাশি চলছে। জানা গেছে অভিযুক্তরা প্রত্যেকেই মদ্যপ ছিল। জেরায় মহিলা জানিয়েছেন, পাঁচজন তার উপর অত্যাচার চালিয়েছে।

বাকিরা তাঁর স্বামীকে আটকে রেখেছিল। ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে ঝাড়খণ্ড সরকারকে আক্রমণ করেছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের মুখপাত্র প্রতুল শাহদেও অভিযোগ করেছেন, হেমন্ত সোরেনের সরকারের আমলে রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি একেবারে ভেঙে পড়েছে।

তাঁর কথায়, 'এখানে জঙ্গলরাজ চলছে। আমাদের দাবি, এই ধর্ষণ কাণ্ডে ফাস্ট ট্র্যাক কোর্ট তৈরি করে দ্রুত বিচার সম্পন্ন করা হোক।'