হাওড়ায় চিতায় আগুন দেওয়ার পর নড়ে উঠলেন বৃদ্ধ

হাওড়ায় চিতায় আগুন দেওয়ার পর নড়ে উঠলেন বৃদ্ধ

ভারাক্রান্ত মনে ইতস্তত ছড়িয়ে ছিটিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন আত্মীয়রা। মন্ত্রোচ্চারণ শেষ। বিধি মেনে পুরোহিতের ইশারায় দেওয়া হল চিতায় আগুন। আচমকাই এক আত্মীয়ের চোখে পড়ল নড়ে উঠেছে দেহ। ধড়মড়িয়ে চমকে উঠে তিনি চিত্‍কার করলে দ্রুত আগুন নিভিয়ে দেহ নামিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে।

চিকিত্‍সকরা পরীক্ষা করলেন তাঁকে এবং জানালেন জগা জানা (৭৫) মৃত। ফিরিয়ে আনা হয় তাঁর দেহ শ্মশানে এবং শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়। শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার জগত্‍বল্লভপুরের খাদারঘাটে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বাড়িতেই মৃত্যু হয় জগা জানার। কার্যত এই ধরনের ঘটনার উদাহরণ এর আগেও দেখা গেছে।

চিতায় আগুন দেওয়ার পর মৃতদেহের নড়ে ওঠা এবং তাঁকে নিয়ে হাসপাতালে যাওয়ার পর সেই ব্যক্তিকে আবার মৃত বলে ঘোষণা করেছে হাসপাতাল। কেন এই পরিস্থিতি তৈরি হয়? উত্তরে এসইউসিআই নেতা এবং বিশিষ্ট চিকিত্‍সক তরুণ মণ্ডল বলেন, 'মৃত্যুর পর যখন শরীরে পচন ধরে তখন 'রাইগার মর্টিস' তৈরি হতে থাকে।

যে কারণেই মনে হয় হাত নড়ে উঠল বা পা নড়ে উঠল। অনেকসময় গুটিয়েও আসতে থাকে। এটা মৃত্যু পরবর্তী একটা শারীরিক বিক্রিয়া। যা মাংশপেশীতে টানের জন্য হয়। একজন চিকিত্‍সক যখন কাউকে মৃত বলে ঘোষণা করেন তখন একেবারে নিশ্চিত হয়েই তিনি এই সিদ্ধান্ত নেন। তবুও এরকম পরিস্থিতি তৈরি হলে সবসময় চিকিত্‍সকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।'