মৃত্যু হয়নি চিকিত্‍সক সংযুক্তার , বেঁচে থাকবেন আরও অনেক মানুষের মধ্যে

মৃত্যু হয়নি চিকিত্‍সক সংযুক্তার , বেঁচে থাকবেন আরও অনেক মানুষের মধ্যে

ফের শহরে অঙ্গদানের নজির। মাত্র ৪১ বছরে চিকিত্সক সংযুক্তার ব্রেন ডেথের পরেই অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত নেয় পরিবার। সংযুক্তার অঙ্গদানে জীবন ফিরে পেলেন তিনজন। আরও একজন পেতে চলেছেন জীবনের আলো। নিউটাউনের বাসিন্দা চিকিত্সক সংযুক্তা শ্যাম রায় এনআরএস মেডিক্যাল কলেজের প্রাক্তনী।

যে বেসরকারি হাসপাতালে তাঁর ব্রেন ডেথ ঘোষণা করা হয়, সেখানেই নিউরো অ্যানাস্থেটিস্ট হিসেবে চিকিত্সা করছিলেন তিনি। সব ঠিকঠাকই ছিল, আচমকাই সব শেষ। শনিবার বাড়িতেই ম্যাসিভ হার্ট অ্যাটাক। আধঘণ্টার মধ্যে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় সংযুক্তাকে। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। ৩ দিন পর মঙ্গলবার সকালে ব্রেন ডেথ ঘোষণা করা হয় চিকিত্‍সক সংযুক্তার।

তারপরই তাঁর অঙ্গদানের সিদ্ধান্ত নেয় পরিবার। বুধবার সকাল থেকে শুরু হয়ে যায় প্রক্রিয়া। সংযুক্তা শ্যাম রায়ের অঙ্গ গ্রিন করিডরের মাধ্যমে পাঠানো হয় হাসপাতালগুলোতে। লিভার পৌঁছয় অ্যাপোলো হাসপাতালে। একটি কিডনি দেওয়া হয় এসএসকেএমে। অপর কিডনি দেওয়া হয় আইএলএস হাসপাতালে। আর কর্নিয়া সংরক্ষিত করা হয়েছে দিশা আই হাসপাতালে।

গ্রহীতা পেলেই তা দান করা হবে। চিকিত্‍সক সংযুক্তা শ্যাম রাইয়ের লিভার প্রতিস্থাপন করা হয়েছে ৬১ বছরের এক পুরুষ গ্রহীতার দেহে। একটি কিডনি পান ৪৫ বছরের আরও এক পুরুষ গ্রহীতা। অপর কিডনিটি প্রতিস্থাপিত হয়েছে জামশেদপুরের বাসিন্দা ৫২ বছরের এক রোগিণীর দেহে।

অঙ্গ প্রতিস্থাপনের গোটা প্রক্রিয়ার তত্ত্বাবধানে ছিলেন ডাক্তার সংযুক্তা শ্যাম রায়েরই সহকর্মী। চিকিত্‍সক সংযুক্তার মৃত্যু হয়নি। সংযুক্তা বেঁচে থাকবেন আরও অনেক মানুষের মধ্যে। আরও অনেক মানুষের হৃদয়ে। এমনটাই বলছেন সংযুক্তার পরিবার থেকে পরিচিত সবাই।