নদিয়ায় বাবার বিকৃত লালসার শিকার হয়ে অন্তঃসত্ত্বা মেয়ে

নদিয়ায় বাবার বিকৃত লালসার শিকার হয়ে অন্তঃসত্ত্বা মেয়ে

নাবালিকা মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ বাবার বিরুদ্ধে, গ্রেফতার বাবা। বাবার কারণেই আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা নাবালিকা। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে,নদীয়া জেলার রানাঘাট রেল কোয়ার্টার এলাকার বাসিন্দা বছর ৪৫ এর সঞ্জয় মল্লিক তার ১৪ বছরের মেয়েকে নিয়ে রানাঘাটে থাকতেন অন্য দিকে পারিবারিক বিবাদের কারণে স্ত্রী রিতা মল্লিক হাবরা হাটথুবা অম্বিকা সরণি এলাকায় ভাড়া থাকতেন।

মাস তিনেক আগে নাবালিকা রানাঘাট থেকে পালিয়ে মায়ের কাছে হাবড়ায় চলে আসেন। নাবালিকা রবিবার সন্ধ্যায় হাবড়া থানায় বাবার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ ২০১৯ সাল থেকে বাবা নাবালিকা মেয়েকে লাগাতার ধর্ষণ করেন। বর্তমানে আট মাসের অন্তঃসত্ত্বা নাবালিকা। নাবালিকা বুঝে উঠতে পারেনি তার শারীরিক অসুস্থতার বিষয়টি।

 রবিবার নাবালিকা হাবড়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন বাবার বিরুদ্ধে। ঘটনার তদন্তে নামে পুলিশ অভিযুক্তকে রানাঘাট থেকে গ্রেফতার করে রবিবার গভীর রাতে। নাবালিকার শারীরিক পরীক্ষা করা হয় হাবড়া হাসপাতালে।

নাবালিকার গোপন জবানবন্দির জন্য নাবালিকাকেও বারাসত আদালতে তোলা হয়। পাশাপাশি অভিযুক্ত বাবাকেও পুলিশ হেফাজত চেয়ে বারাসত আদালতে তোলা হয় হাবড়া থানার পুলিশের পক্ষ থেকে। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে হাবড়া থানার পুলিশ।